Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


November 5, 2018

Misti Hub conducts record business during Durga Puja

Misti Hub conducts record business during Durga Puja

Since its inception last July, the Misti Hub in Newtown has been gradually increasing its business. For the people of Newtown and Rajarhat, as well as for those travelling to and from the airport, Misti Hub has become a hotspot.

Misti Hub has brought under one roof the best and most illustrious sweet brands of Kolkata as well as ones selling traditional sweets, like the ones from Bardhaman.

And now, during the four days of Durga Puja, the hub conducted huge business, so much so that owners of all the shops were pleasantly surprised. They were profuse on their praise of the State Government and Chief Minister Mamata Banerjee – this project was her brainchild – for creating this hub.

Not just that, they are now confident of business growing much more. Customers are very happy as they get the best of Bangla’s sweets under one roof.

Source: Sangbad Pratidin


নভেম্বর ৫, ২০১৮

মিষ্টি হাবে রেকর্ড ব্যবসা, ব্যবসায়ীদের দিলখুস

মিষ্টি হাবে রেকর্ড ব্যবসা, ব্যবসায়ীদের দিলখুস

শক্তিগড়ের ল্যাংচা! কৃষ্ণনগরের সরভাজা ৷ তা-ও এই কলকাতায় হাতেগরম৷ এর সঙ্গে বাংলার নামী ব্যান্ডের জিভে জল আনা সব মিষ্টি তো রয়েছেই ৷ এক ছাদের তলায় এত মিষ্টির সমাহারে বাণিজ্য এগোচ্ছে তরতরিয়ে ৷ পুজােয় যা ছপ্পড় ফাড়কে দিয়েছে বলে মন্তব্য করছেন রাজারহাটে ইকোপার্কের লাগোয়া মিষ্টিহাবের ব্যবসায়ীরা৷

চমকে দেওয়ার মতো ব্যবসা পেয়ে দিলখুশ ব্যবসায়ীদের ৷ খুশি হিডকাে কর্তৃপক্ষ ৷ জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে দরজা খোলার পর নানা সমালোচনার ঝড় বড়ে গিয়েছিল মিষ্টিহাব নিয়ে৷ দ্রুতগামী সড়কের গায়ে এমন একটা প্রকল্প, সেখানে দাড়িয়ে কে মিষ্টি কিনবে, কে-ই বা খাবে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন অনেকে ৷ কয়েকমাসের মধ্যেই দেখা গেল মানুষের মধ্যে উৎসাহ যথেষ্ট৷

রাজারহাটে বেড়ে চলা নগরায়ণের মাঝে নামী কোনও মিষ্টি দোকান নেই৷ সল্টলেকে রয়েছে৷ এখানকার মানুষ ইচ্ছে হলেই তা কিনতে পারেন না৷ তা ছাড়া বিমানবন্দর থেকে যাতায়াতের পথে মানুষের ইচ্ছে হলেও উপায় থাকত না বাংলার বিখ্যাত মিষ্টি নিয়ে যাওয়ার বা বাড়ি ফেরার সময় নিয়ে ঢোকার৷ সেই ইচ্ছে পূরণ সম্ভব হয়েছে মিষ্টিহাবের জন্য৷

কে সি দাস, গাঙ্গুরাম, নবকৃষ্ণ গুঁই , মিঠাই, হিন্দুস্থান সুইটস, নলিনী দাস, গুপ্ত ব্রাদার্সের মতো নামী ব্রান্ডের ১০টি দোকান যেমন রয়েছে, তেমন একটিতে থরে থরে রয়েছে বর্ধমানের সীতাভােগ, মিহিদানা, শক্তিগড়ের ল্যাংচা, কৃষ্ণনগরের সরভাজ্জা, সরপুরিয়া ৷ ফলে চকোলেট সন্দেশ, ছানার জিলিপি, দরবেশ, মহা রাজভোগ বা একেবারে বাঙালির নিজস্ব রসগোল্লা মিলছে এক ছাদের তলায় | হিডকাের তত্তাবধানে এই প্রকল্প চালুর পর প্রথম পুজোতেই কিন্তিমাত করল সবাই | এমন দিনও গিয়েছে, সন্ধ্যা গড়াতেই ভাড়ার শেষ হয়েছে কারও | ইিডকাের এক কর্তাও স্বীকার করেছেন, ব্যবসা বেড়েছে ৷ এবং আগামিদিনে পরিকাঠামোর আরও উন্নতির পরিকল্পনা রয়েছে|