Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


November 18, 2018

Fully-operational Woodburn Ward at SSKM in 2019

Fully-operational Woodburn Ward at SSKM in 2019

The Woodburn Ward at SSKM Hospital, the premier multi-speciality hospital of the State Government, will be fully operational in early 2019. Due to its best-in-class services, a stay at the ward is one of the most sought-after hospital experiences for patients getting admitted in government hospitals.

Not just that, the Trinamool Congress Government has also decided to keep the bed charges at affordable levels – between Rs 2,000 and Rs 4,000. These rates would be impossible to match for most private hospitals.

There are a total of 40 beds in the heritage cabins of various sizes in the more-than-a-century-old Woodburn Ward. They have been undergoing renovations for quite some time. Sixteen of these are already operational for the past few months. The other 24 would open to the public by early next year.

Of the already-operational 16, the bed charge for 10 is Rs 2,500 per night and Rs 4,000 for the other six. Of the newly-renovated 24, the bed charge for 16 would be Rs 2,000 per night and for the other eight, Rs 4,000 per night.

Source: Bartaman


নভেম্বর ১৮, ২০১৮

নতুন বছরে চালু হয়ে যাবে পিজি’র গোটা উডবার্ন ওয়ার্ড

নতুন বছরে চালু হয়ে যাবে পিজি’র গোটা উডবার্ন ওয়ার্ড

নতুন বছরে রাজ্যের এক নম্বর সুপারস্পেশালিটি হাসপাতাল পিজি’র ঐতিহ্যবাহী উডবার্ন ওয়ার্ডের আরও ২৪টি কেবিন চালু হয়ে যাচ্ছে। কলকাতার নামকরা বেসরকারি হাসপাতালগুলির মতো টাইলস, মডিউলার বেড, এলইডি টিভি, হালফ্যাশনের সোফায় সাজছে কেবিনগুলি। এর সঙ্গে থাকছে মার্বেলে মোড়া উডবার্নের লম্বা বারান্দা আর কেবিনের বাইরের ব্রিটিশ আমলের ইজিচেয়ারের আরামের বাড়তি পাওনা।

ঝাঁ চকচকে এই কেবিনগুলিতে থাকার খরচও থাকছে মধ্যবিত্তদের নাগালের মধ্যে। ২৪টির মধ্যে ১৬টি কেবিনে থাকার খরচ পড়বে দৈনিক দু’হাজার টাকা। যা বর্তমানে চালু উডবার্নের কেবিনগুলির মধ্যে সবচেয়ে সস্তার। বাকি আটটি সিঙ্গল কেবিনের দৈনিক বেডভাড়া চার হাজার টাকা।

হাসপাতাল সূত্রের খবর, উডবার্নের ঠিক পিছনে শুধুমাত্র এখানকার রোগীদের জন্যই চালু হবে আধুনিক এমআরআই। তিনতলায় অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি আনা হয়েছে পুরনো দু’টি অপারেশন থিয়েটারে। সেই তলাতেই রোগীদের বসার জন্য নতুন জায়গা তৈরি হয়েছে। রোগীর মেডিক্যাল বোর্ডের বৈঠকের জন্য মিটিং রুমও করা হয়েছে সেখানে। প্রয়োজনে যখন তখন ওষুধের ব্যবস্থা করতে শুধু উডবার্নের জন্য ন্যায্যমূল্যের দোকানের এক কর্মীকে সর্বক্ষণের জন্য রাখা হচ্ছে।

পিজি সূত্রের খবর, ছ’ থেকে সাত মাস টানা কাজের পর উডবার্নের পুরনো ব্লকের দুই এবং তিন তলা মিলিয়ে ১৬টি কেবিন রি-মডেলিং-এর পর খুলে দেওয়া হয়েছে চলতি বছরের ৭ মে। ২৩ মে শুরু হয় সেখানে রোগী ভর্তি। সেখানে রয়েছে আড়াই হাজার টাকা ভাড়ায় ১০টি ছোট কেবিন। বাকি ছ’টি বড় কেবিনে বেডভাড়া চার হাজার টাকা করে। সেই থেকে আজ পর্যন্ত ১৮৮ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন উডবার্নের খুলে যাওয়া অংশে। রোগীদের যাতে ভোগান্তি না হয়, সেজন্য একটি বেসরকারি সংস্থাকে সেই অংশের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বও দেওয়া হয়।

একদিকে যখন এই পিজি’র নতুন ব্লক সাড়া ফেলেছে, রাজ্য সরকার উডবার্নের পুরনো অংশটিও সাজানো শুরু করে দেয়। ফেব্রুয়ারিতে খুলতে চলেছে বড় অংশটি। ফেব্রুয়ারিতে অন্য ব্লকটির উদ্বোধনের মাধ্যমে উডবার্ন ওয়ার্ডটি নতুনভাবে খুলে গেলে তাতে থাকছে ১৪টি সিঙ্গল তথা চার হাজার টাকার বড় কেবিন। আড়াই হাজার টাকা বেডভাড়ার ১০টি হাফ কেবিন। আর দু’হাজার টাকার ১৬টি ডবল শেয়ারিং বেড।

সৌজন্যে: বর্তমান