Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


November 9, 2018

SFDC cultivating 3 new fish varieties, to go commercial early next year

SFDC cultivating 3 new fish varieties, to go commercial early next year

Your fish platter will soon get three new varieties. The State Fisheries Development Corporation (SFDC) has started cultivating Thai sarputi, Indian pompano and gulas tangra fish that will be commercially introduced in the markets early next year.

The SFDC officials said that the fingerlings of these three fishes have already been released in waterbodies owned by the State Government at Nalban in Kolkata, and in Goltala and Henry’s island in South 24 Parganas for cultivation.

While the gulas tangra and Thai sarputi are being cultured in the sewage-fed water of Nalban and in Goltala, the Indian Pompano is being cultured in the waterbodies of Henry’s Island.

A Thai sarputi grows for about four to six months, while the gulas tangra and Indian pompano grow for six to eight months and six to seven months, respectively.

The Thai sarputi is a substitute for the local punti fish, but is bigger in size yet cheaper. The gulas tangra is a substitute for the local tangra and the Indian pompano is a substitute for the pomfret and silver pompano.

Initially, the SFDC would start selling the fishes, both raw and cooked, from its stalls and mobile vending outlets across Kolkata. They will also be sold through the SFDC app via which people are already buying fish which is being delivered at their doorsteps.

Once the trial run is completed and the demand shoots up, the varieties would be placed at auction markets for fish vendors, who will buy them for commercial selling in retail markets.

The per kilo prices of Thai sarputi, gulas tangra and Indian pompano will be around Rs 150, Rs 180 to Rs 200 and Rs 280 to Rs 300, respectively.


নভেম্বর ৯, ২০১৮

তিনটি নতুন প্রজাতির মাছের চাষ শুরু করল মৎস্য দপ্তর

তিনটি নতুন প্রজাতির মাছের চাষ শুরু করল মৎস্য দপ্তর

খুব শীঘ্রই তিনটি নতুন প্রজাতির মাছ বাংলার মানুষের পাতে আসতে চলছে, সৌজন্যে রাজ্য মৎস্য দপ্তর। থাই সরপুঁটি, ভারতীয় পম্পানো এবং গুলাস ট্যাংরা চাষ করছে দপ্তর। খোলা বাজারে এই মাছগুলি পাওয়া যাবে আগামী বছর থেকে।

মৎস্য দপ্তরের আধিকারিকরা জানিয়েছেন তারা ইতিমধ্যেই নলবন, গোলতলা এবং হেনরিজ আইল্যান্ডে অবস্থিত মৎস্য দপ্তরের জলাশয়ে এই তিন প্রজাতির মাছের চারা ছেড়েছেন। থাই সরপুঁটি এবং গুলাস ট্যাংরা চাষ করা হচ্ছে গোলতলা ও নলবনে। ভারতীয় পম্পানো চাষ হচ্ছে হেন্রিজ আইল্যান্ডে।

থাই সরপুঁটির পূর্ণ বিকাশের জন্য সময় লাগে চার থেকে ছয় মাস, গুলাস ট্যাংরার সময় লাগে ছয় থেকে আট মাস এবং ভারতীয় পম্পানোর সময় লাগে ছয় থেকে আট মাস। থাই সরপুঁটি হল দেশী সরপুঁটির বিকল্প, গুলাস ট্যাংরা হল দেশী ট্যাংরার বিকল্প এবং ভারতীয় পম্পানো হল পম্ফ্রেট এবং রুপালি পম্পানোর বিকল্প।

দপ্তরের পরিকল্পনা রয়েছে এই মাছগুলি প্রাথমিকভাবে কাঁচা ও রান্নাকরা পদ, দুই ভাবেই বিক্রী করা শুরু করবে। দপ্তরের স্টল ও ভ্রাম্যমান বিপণনের গাড়িগুলি থেকে হবে বিক্রয়। মৎস্য দপ্তরের অ্যাপের মারফৎ বিক্রীও চলবে।

এই প্রাথমিক বিপণন সফল হলে মৎস্য ব্যবসায়ীদের কাছে নিলামের মাধ্যমে বিক্রী করা হবে এই মাছগুলি। তারা এরপর খোলা বাজারে বিক্রী করবেন। থাই সরপুঁটির দাম হবে ১৫০ টাকা প্রতি কিলো, গুলাস ট্যাংরার দাম হবে কিলো প্রতি ১৮০ থেকে ২০০ টাকা এবং ভারতীয় পম্পানোর দাম হবে কিলো প্রতি ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা।