Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


November 16, 2018

Manifold increase in Bangla’s mining revenue

Manifold increase in Bangla’s mining revenue

The amount of revenue collected from minor and major minerals in Bangla stands at Rs 2,264 crore – Rs 574 crore from minor minerals and Rs 1,690 crore from major minerals. When the Trinamool Congress Government came to office in 2011, the revenue from minor minerals stood at only Rs 88.6 crore.

The information was given by the State Industry, Commerce and Enterprises Minister Dr Amit Mitra while speaking at the Global Mining Summit 2018, organised recently by the Confederation of Indian Industry (CII) at Eco Park. Currently, the State Government has 228 mines in the Raniganj and Asansol regions.

The amount has increased because of the transparency and the integrity that have been incorporated into the system, he said. The revenues have been lent to social and physical infrastructure.

Dr Mitra said that the Bangla Government has been given five exploration proposals through mineral exploration coverage by the Central Government and that the State is working on them.

The minister added that Bengal has 35 billion tonnes of coal reserves, consisting of high-value coal with low sulphur and low ash content. Bengal is among the few states to have coal-bed methane (CBM).

Source: Millennium Post


নভেম্বর ১৬, ২০১৮

সাত বছরে রাজ্যে খনি শিল্পে আয় বেড়েছে কয়েক গুণ

সাত বছরে রাজ্যে খনি শিল্পে আয় বেড়েছে কয়েক গুণ

গত সাত বছরে রাজ্যে খনি শিল্পে আয় বেড়েছে কয়েক গুণ। ছোট খনি থেকে রাজ্যের আয় হয়েছে ৫৭৪ কোটি টাকা; বড় খনি থেকে আয় হয়েছে ১৬৯০ কোটি টাকা। ২০১১ সালে যখন তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসে, তখন পর্যন্ত ছোট ও বড় খনি মিলিয়ে রাজ্যের আয় ছিল ৮৮.৬ কোটি টাকা।

নিউ টাউনের ইকো পার্কে সিআইআই আয়োজিত গ্লোবাল মাইনিং সামিট ২০১৮-তে রাজ্যের অর্থ, শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রী ডঃ অমিত মিত্র এই তথ্য দেন। এই মুহূর্তে রাজ্যে রানীগঞ্জ ও আসানসোল অঞ্চলে ২২৮টা খনি আছে।

ডঃ অমিত মিত্র বলেন, রাজ্যে প্রশাসনিক কাজে স্বচ্ছতা বেড়েছে, এসেছে ন্যায়পরায়ণতা। তারই ফল এই বিপুল আয় বৃদ্ধি। এই টাকা রাজ্যের সামাজিক উন্নয়ন ও স্থায়ী পরিকাঠামো তৈরীতে ব্যবহার করা হচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, রাজ্য সরকারকে কেন্দ্রীয় সরকার পাঁচটি খনি খননের প্রস্তাব দিয়েছে। রাজ্য সরকার সেই বিষয়ে কাজ করছে।

তিনি আরও বলেন, রাজ্যের খনিগুলিতে ৩৫০ কোটি টন ভালো মানের কয়লা আছে; এতে সালফার ও ছাই এর পরিমাণ কম। রাজ্যে রয়েছে কোল বেড মিথেনের খনিও।