Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


January 3, 2019

State Govt’s earnest efforts result in spur in organ transplants

State Govt’s earnest efforts result in spur in organ transplants

Thanks to the constant awareness campaigns being run by the State Health Department, Bangla has seen an unprecedented spur in organ transplants. The campaigns are run at both the government-run and private.

According to a senior official of the department, as many as 14 different cases of organ transplants have taken place in the State since July 2018. The transplants have taken place at both State-run and private institutions.

Organ transplants that have occurred here are essentially cadaver transplants. Organs were retrieved from patients who were declared brain dead by the competent authorities, transported to other hospitals and then transplanted on to patients in need.

The whole process is done through a register maintained by the Regional Organ and Tissue Transplant Organisation (ROTTO), which holds names of potential receivers who urgently require organs.

It may be mentioned that transplant of an organ is heavily dependent on the initiative of the individuals rather than a comprehensive system. Hence, the campaigns of the Health Department are crucial.

Department officials are hopeful that the number of transplants in the State will go up in the future. The awareness campaigns have been intensified and a concrete roadmap is being created. The department will also tie up with non-governmental organisations (NGO) to carry out the campaign in a more effective manner.

Source: Millennium Post

 


জানুয়ারী ৩, ২০১৯

রাজ্য সরকারের উদ্যোগে উল্লেখযোগ্য ভাবে বেড়েছে অঙ্গ প্রতিস্থাপন

রাজ্য সরকারের উদ্যোগে উল্লেখযোগ্য ভাবে বেড়েছে অঙ্গ প্রতিস্থাপন

রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের ঐকান্তিক প্রয়াস ও সচেতনতা অভিযানের ফলে বাংলায় উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়ছে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের নজির। সরকারি ও বেসরকারি – দুভাবেই চালানো হচ্ছে সচেতনতা।

দপ্তরের এক উচ্চাধিকারিক বলেন, ২০১৮ সালের জুলাই মাস থেকে এখন পর্যন্ত ১৪টি অঙ্গ প্রতিস্থাপন হয়েছে। এই প্রতিস্থাপন সরকারি এবং বেসরকারি হাসপাতালে হয়েছে।

এখন অবধি যতগুলি অঙ্গ প্রতিস্থাপন করা হয়েছে, সেগুলি ক্যাডাভার প্রতিস্থাপন। যে সকল রোগীদের ব্রেন ডেড বলে ঘোষিত করা হয়েছে, তাদের অন্য হাসপাতালে স্থানান্তরিত করে অঙ্গ প্রতিস্থাপন করা হয়েছে।

রোটো (Regional Organ and Tissue Transplant Organisation) তে নথিভুক্ত তালিকা অনুসারেই অঙ্গ প্রতিস্থাপন করা হয়ে থাকে। এই তালিকাতে যাদের অঙ্গ প্রয়োজন, তাদের নাম নথিভুক্ত থাকে।

প্রসঙ্গত, অঙ্গদান সম্পূর্ণভাবে একটি ব্যাক্তিগত সিদ্ধান্ত। তাই, স্বাস্থ্য দপ্তরের সচেতনতা অভিযান খুব প্রয়োজন।

ভবিষ্যতে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে। তাই সচেতনতা প্রসারে উদ্যোগী হয়েছে দপ্তর। তার জন্য একটি রোডম্যাপ তৈরী করা হচ্ছে। এই প্রচার বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গেও হাত মিলিয়েছে দপ্তর।