Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


January 17, 2019

Bangla now a big draw for foreign tourists

Bangla now a big draw for foreign tourists

Bangla has risen to the sixth position in the country in terms of the number of foreign tourists coming to the State, overtaking hotspots like Goa and Kerala.

While stating this at a recent summit in Kolkata organised by the Confederation of Indian Industry (CII), the chairman of the tourism subcommittee of the organisation said that this is the result of the various policy initiatives that the Trinamool Congress Government has been taking.

The State has made huge progress in terms of quality of service, reliability and affordability, which have provided a major impetus to tourism, he said.

More than 71 million tourists visited the State in 2018, as per a report of the Union Ministry of Tourism.

At the summit, members of the CII suggested a slew of measures that the State can take to bring in more tourists – river tourism, heritage tourism in places Murshidabad, Bankura and Birbhum, and developing entertainment hubs in places in and around Kolkata like Park Street, Tangra, Sector V and New Town.

Source: The Times of India

 


জানুয়ারী ১৭, ২০১৯

বিদেশি পর্যটকদের পছন্দ বাংলা

বিদেশি পর্যটকদের পছন্দ বাংলা

বিশ্বের দরবারে বাংলার পর্যটনকে তুলে ধরতে সচেষ্ট মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর প্রয়াসকেই স্বীকৃতি জানাল বণিকসভা সিআইআই। বিদেশি পর্যটক টানতে দেশের মধ্যে ষষ্ঠ স্থানে উঠে এল বাংলা। পিছনে ফেলল পর্যটনের জন্য বিখ্যাত গোয়া ও কেরালাকে।

রাজ্যে জন্য এই সুখবর সোমবার শুনিয়েছেন সিআইআই-এর পর্যটন সংক্রান্ত সাব-কমিটির চেয়ারম্যান। পর্যটনের প্রসারে রাজ্যের প্রচেষ্টাকে কুর্নিশ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বিদেশি পর্যটকদের আকর্ষণে ব্যবস্থার বিচারে দেশের মধ্যে ষষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছে পশ্চিমবঙ্গ। যা গোয়া এবং কেরালার থেকেও আগে। পরিষেবা ক্ষেত্রে বহু গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে রাজ্যে। এই পদক্ষেপগুলি পর্যটন ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলেছে।’

বিদেশি পর্যটকদের কাছে বাংলার পর্যটন স্থানগুলির মধ্যে সবচেয়ে আকর্ষণীয় দার্জিলিং। পাহাড়ি হাওয়ার মজা লুটতে ভিড় জমিয়েছেন ভিন দেশের মানুষেরা। ‘দার্জিলিং ও সংলগ্ন হিল স্টেশনগুলিতেই বেশি ভিড় করেছেন বিদেশি পর্যটকরা। ইউনেস্কোর স্বীকৃতিপ্রাপ্ত টয়ট্রেনও আকর্ষণের অন্যতম কারণ।

সিআইআই-এর এই স্বীকৃতিকে স্বাগত জানিয়ে রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী বলেন, ‘পর্যটনের উন্নয়নে হোম স্টে ব্যবস্থার উপর জোর দিয়েছে সরকার। পর্যটনের বাজার বাড়তে দেখে ভালো লাগছে। এর জেরে কর্মসংস্থান বৃদ্ধিও হচ্ছে।’ প্রসঙ্গত, রাজ্যে পর্যটনকে আকর্ষণীয় করে তুলতে হোম স্টে-র মালিকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানা গেছে।

সৌজন্যেঃ এই সময়