Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


January 9, 2019

Bankura becomes top ODF district in India

Bankura becomes top ODF district in India

Bankura has ranked first among the 412 districts, covering the 25 States and union territories, in the Open Defecation Free (ODF) contest organised by the Centre in connection with World Toilet Day (November 19). The contest was held from November 9 to 19, 2018.

There were in fact two districts from Bangla in the top ten. Murshidabad bagged the 9th position. Cooch Behar district received a special mention.

It may be mentioned that Mission Nirmal Bangla was announced by Chief Minister Mamata Banerjee before the Swachh Bharat Abhiyan. Accordingly, the Panchayats and Rural Development Department had taken special drives to make the districts ODF.

Nadia became country’s first ODF district, for which project it received the United Nations Public Service Award.

Massive campaigns were launched by the department. Senior officials of the department visited the districts to oversee the work and surprise visits were conducted. Teams were set up in the districts that urged the people to use toilets and not defecate in the open. To ensure a grassroots reach, folk artistes performed in the campaigns as well.

Source: Millennium Post


জানুয়ারী ৯, ২০১৯

দেশের সেরা নির্মল জেলার তকমা পেল বাঁকুড়া

দেশের সেরা নির্মল জেলার তকমা পেল বাঁকুড়া

বিশ্ব শৌচালয় দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় সরকারের আয়োজিত এক প্রতিযোগিতায় দেশের ৪১২টি নির্মল জেলার মধ্যে সেরার শিরোপা ছিনিয়ে আনল বাংলার বাঁকুড়া জেলা।

২০১৮ সালের নভেম্বর মাসের ৯ থেকে ১৯ তারিখের মধ্যে দেশব্যাপী একটি প্রতিযোগিতা আয়োজিত হয় ২৫টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৪১২টি নির্মল জেলাগুলির মধ্যে। সম্প্রতি ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পর দেখা যায় যে সেরার শিরোপা পেয়েছে বাংলার বাঁকুড়া জেলা এবং প্রথম দশের মধ্যে নবম স্থান দখল করেছে বাংলারই মুর্শিদাবাদ জেলা। কোচবিহার জেলাও পেয়েছে বিশেষ স্বীকৃতি।

প্রসঙ্গত, স্বচ্ছ ভারত অভিযানের অনেক আগেই নির্মল বাংলা মিশন শুরু হয় এ রাজ্যে। ২০১৫ সালে দেশের প্রথম নির্মল জেলা ঘোষিত হয় বাংলার নদীয়া জেলা। পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দপ্তর এই লক্ষ্যে একাধিক অভিযান চালায়। দপ্তরের উচ্চাধিকারিকরা জেলায় জেলায় পরিদর্শন করেন। অনেক টীম তৈরী করা হয় যারা জেলায় জেলায় গিয়ে মানুষদের আর্জি জানান শৌচকর্মের জন্য শৌচালয় ব্যবহার করতে। লোকশিল্পীদের দিয়েও প্রচার চালানো হয়।