Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


January 11, 2019

CBI being misused by BJP for political gains: Mamata Banerjee

CBI being misused by BJP for political gains: Mamata Banerjee

Bangla Chief Minister Mamata Banerjee on Friday accused the ruling Bharatiya Janata Party (BJP) of misusing the Central Bureau of Investigation (CBI) for political gains.

“The CBI has been repeatedly misused by the BJP, which is trying to use the probe agency for political gains and turn it into ‘His Master’s Voice’,” she said, referring to the fiasco surrounding Alok Verma, the former director of the agency who was removed from his position by a high-powered committee on Thursday.

“The BJP is destroying institutions like the CBI and the RBI,” she added.

She also said that ‘super emergency’ is going on in the country. Accusing the Centre of interfering in State’s affairs, the CM said that the federal structure was being demolished.

On the NRC issue, she said, ” I have no problem about the safety and security of the country. But if you want to throw out genuine people, the real citizens become homeless. In Bengal, everyone from other states are staying. Any Indian can stay and work in any state.”

The CM added, “What happened in Gujarat? Biharis, UPites have been chased away. In Assam, in the name of NRC, Biharis, UPites, Tamilians, have been chased out. Even 23 lakh Bengali Hindus as well. All this shows that the intention is very bad.”

She also said, “We are with the people of Assam and Tripura. Whenever helpless people from there require help, we will give it.”


জানুয়ারী ১১, ২০১৯

সিবিআইকে রাজনৈতিক কারণে ব্যবহার করা হচ্ছে: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

সিবিআইকে রাজনৈতিক কারণে ব্যবহার করা হচ্ছে: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

রাজনৈতিক কারণে সিবিআইকে ব্যবহার করা হচ্ছে। বিজেপি পার্টি অফিস থেকে তাদের নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। এমন অভিযোগ করে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি আরও বলেন, রিজার্ভ ব্যাঙ্কও অনেকটা সেরকম কাজ করছে।

“কেন্দ্রীয় সরকার যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামো ধ্বংস করছে। আয়ুষ্মান প্রকল্পে রাজ্যের ভাগ থাকা সত্ত্বেও তারা প্রকল্পটি নিজেদের বলে চালাচ্ছে। রাজ্যের বিষয়ে কেন্দ্র নাক গলাচ্ছে। দেশে সুপার এমার্জেন্সি চলছে। সংসদের উভয় কক্ষে জোর করে বিল পাস করানো হচ্ছে,” বলেন তিনি।

নাগরিকত্ব আইন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “গুজরাটে কি হয়েছিল? বিহার ও উত্তরপ্রদেশ বাসীদের তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। অসমে নাগরিকপঞ্জির নামে বাঙালি, বিহারী, উত্তরপ্রদেশ বাসী, তামিলদের তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এমনকি ২৩ লক্ষ হিন্দু বাঙালী কেও তাড়ানোর চেষ্টা চলছে। এই প্রবণতা খুব খারাপ।”

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমার দেশের সুরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু, নাগরিকদের যদি দেশের বাইরে বার করে দেওয়া হয়, প্রকৃত নাগরিকরা গৃহহীন হয়ে পড়বে। দেশের যে কোনও নাগরিক দেশের যে কোনও রাজ্যে বসবাস করতে পারেন, কাজ করতে পারেন।”

তিনি আরও বলেন, আমরা অসম ও ত্রিপুরাবাসীদের পাশে আছি। যদি অসহায় মানুষ আমাদের কাছে সাহায্য চায়, আমরা তা করব।