Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


January 29, 2019

Kulick Bird Sanctuary to get a makeover

Kulick Bird Sanctuary to get a makeover

The State Tourism Department is spending an amount of about Rs 4 crore in setting up several projects at Kulick Bird Sanctuary, which is Asia’s largest bird sanctuary, in Uttar Dinajpur district. Hundreds of tourists from across the country visit the sanctuary.

Among the projects are the establishment of an animal rescue centre, a bird preservation centre, an aquarium for ornamental fishes, a turtle rehabilitation centre, a butterfly park, a nature interpretation centre and three watchtowers for nature viewing.

Of these, the first four have already have already been started, according to a senior Forest Department official of the district.

A 1.3 km-long tunnel has also been dug up inside the sanctuary for rearing fishes for the birds. Two Australian emus have also been brought to the sanctuary. With the new facilities, the Tourism Department is expecting many more tourists.

Notably, every year, around 90,000 to 100,000 migratory birds arrive at Kulick Bird Sanctuaries. The birds include cormorants, open-bill stork, egret herons, night herons and several others, mostly from countries in South Asia. They arrive in June to nest, mate and give birth, and leave in November.

Source: The Statesman

File image


জানুয়ারী ২৯, ২০১৯

কুলিক পখিরালয় সংস্কার করবে পর্যটন দপ্তর

কুলিক পখিরালয় সংস্কার করবে পর্যটন দপ্তর

উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জের কাছে কুলিক পখিরালয় সংস্কার করবে রাজ্য পর্যটন দপ্তর। এই অঞ্চলটি রায়গঞ্জ ওয়াইল্ড লাইফ স্যাঙ্কচুয়ারি নামেও পরিচিত। এই পখিরালয়টি এশিয়া মহাদেশের অন্যতম বৃহত্তম। দেশের বহু মানুষ এই পখিরালয়ে বেড়াতে আসেন।

কুলিক পখিরালয়ে যা যা তৈরী হবে, সেগুলি হল, প্রাণীদের উদ্ধার কেন্দ্র, পাখি সংরক্ষণ কেন্দ্র, অ্যাকোরিয়াম, কচ্ছপ সংরক্ষণ কেন্দ্র, নেচার ইন্টারপ্রিটেশন কেন্দ্র এবং তিনটি ওয়াচটাওয়ার। মোট খরচ হবে ৪কোটি টাকা।

১.৩ কিলোমিটার দীর্ঘ একটি সুড়ঙ্গ খনন করা হচ্ছে পাখিদের খাবার হিসেবে মাছ চাষ করার জন্য। দুটি অস্ট্রেলীয় ইমু পাখিও আনা হয়েছে এখানে।

প্রতি বছর আনুমানিক ৯০,০০০ থেকে ১,০০,০০০ পরিযায়ী পাখি এখানে আসে। ওই পাখির মধ্যে আছে করমোর‍্যান্টস, ওপেন বিল স্টর্ক, ইগ্রেট হিরন্স, নাইট হিরন্স এবং অন্যান্য পাখি। এই পাখিদের বেশীর ভাগ আসে দক্ষিণ এশিয়া থেকে। এই পাখিগুলি সাধারণত জুন মাসে আসে এবং প্রজননের পর নভেম্বর মাসে চলে যায়।

ফাইল চিত্র