Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


January 22, 2019

State Govt revamping health infrastructure in the Hills

State Govt revamping health infrastructure in the Hills

The State Health and Family Welfare Department is revamping the health infrastructure in the Hills. Several hospitals and health centres are being renovated with the addition of facilities. Repairs are also taking place at several places.

The block primary health centre (BPHC) in Mirik has been upgraded to a 100-bed sub-divisional hospital. Among other things, a blood bank, separate medical and surgical wards for male and female patients, a separate paediatric unit with facilities of sick newborn care unit (SNCU) and a high-dependency unit (HDU) with six beds would be set up.

A CT scan machine will be installed don a PPP model at the Darjeeling District Hospital. A blood component separation unit (BCSU) will also be set up here.

The rural health centre in Bijanbari, block primary health centre (BPHC) in Takdah and primary health centre in Lodharma would undergo renovation and repair work.

The number of beds at the Kurseong Sub-divisional Hospital will be increased from 120 to 200.

Image source

 


জানুয়ারী ২২, ২০১৯

পাহাড়ে স্বাস্থ্য পরিকাঠামো সংস্কার করছে রাজ্য সরকার

পাহাড়ে স্বাস্থ্য পরিকাঠামো সংস্কার করছে রাজ্য সরকার

রাজ্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তর পাহাড়ে স্বাস্থ্য পরিকাঠামো সংস্কার করছে। হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলির সংস্কারের পাশাপাশি সেখানে পরিষেবাও বাড়ানো হচ্ছে।

মিরিকের ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রকে ১০০ শয্যা বিশিষ্ট মহকুমা হাসপাতালে উন্নীত করা হয়েছে। একটি ব্লাড ব্যাঙ্ক, পৃথক চিকিৎসা ও অস্ত্রোপচার ওয়ার্ড খোলা হয়েছে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য। অসুস্থ সদ্যোজাত শিশুদের জন্য পৃথক পেডিয়াট্রিক ইউনিট এবং একটি ছয় শয্যার হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিট খোলা হয়েছে।

দার্জিলিং জেলা হাসপাতালে পিপিপি মডেলে একটি সিটি স্ক্যান যন্ত্রও স্থাপন করা হবে। রক্তের পৃথকীকরণ ইউনিটও খোলা হবে।

বিজনবাড়ির গ্রামীণ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে, তাকদাহে ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র, লোধার্মা প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে সংস্কার ও মেরামতির কাজ হবে।

কার্শিয়ং মহকুমা হাসপাতালে শয্যার সংখ্যা ১২০ থেকে বাড়িয়ে ২০০ করা হয়েছে।