Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


January 31, 2019

“Don’t believe in violence; to accept views of others is our tradition”: Abhishek Banerjee

“Don’t believe in violence; to accept views of others is our tradition”: Abhishek Banerjee

National President of All India Trinamool Youth Congress and Trinamool MP from Diamond Harbour, Abhishek Banerjee inaugurated a decorative gate at the entrance of the Boro Kachari temple in the South 24 Paraganas on January 30, 2019.

The gate has been constructed with financial assistance from the state Tourism department where a comprehensive plan worth 56 lakh has been taken up to beautify the surrounding areas.

In a statement, Abhishek Banerjee said, “I practice the rituals of Hinduism privately and I believe that when it comes to work, my religion is humanism.”

He also added that Hinduism teaches people to be tolerant and accept views of others: “We do not believe in violence. We accept and respect the views of others and this is our tradition and heritage.”

The Boro Kachari temple is a budding major tourism hub. The Gajon Utsav and Neel Utsav are celebrated here every year in the month of April, while thousands of devotees offer their prayers every Tuesday and Saturday throughout the year.

It took approximately 10 months for the completion of this ornamental gate.

According to history, thousands of farmers took shelter near the temple when the Marathas had planned an attack on Kolkata. A general belief persists among the people in the area, that Baba Boro Kachari protects the villagers from evil.

 


জানুয়ারী ৩১, ২০১৯

ওদের অস্ত্র সন্ত্রাস, আমাদের শান্তি ও সংহতিঃ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

ওদের অস্ত্র সন্ত্রাস, আমাদের শান্তি ও সংহতিঃ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

সাতগাছিয়ার বাখরাহাটে বড় কাছারি মন্দিরের সুসজ্জিত প্রবেশ দ্বারের উদ্বোধন করলেন যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি ও সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

এই অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আমাদের ধর্ম মানবধর্ম। আর বিজেপির ধর্ম ভেঙে দাও, গুঁড়িয়ে দাও। ওদের হাতিয়ার সন্ত্রাস, তলোয়ার আর জয় শ্রী রামের ফেট্টি আর দাঁ। তৃণমূলের হাতিয়ার শান্তি আর সংহতি। তাই আগামী দিনে বাংলাই ভারতকে পথ দেখাবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত বছর মার্চ মাসে প্রবেশ দ্বারের কাজ শুরু হয়েছিল। মাত্র ১০ মাসের মধ্যে ঐতিহাসিক এই প্রবেশদ্বারের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। যেদিন সাংসদ হিসেবে শপথ নিয়েছিলাম, সেদিনই ভেবেছিলাম এই কাজ করার কথা। একই সঙ্গে মন্দিরের সামনের রাস্তার কাজও করেছি। আগামী দিনে ৫৬ লক্ষ টাকায় সৌন্দর্যায়নের কাজও করা হবে। কাজ হবে পীর বাবার মাজারেরও। ভাল জিনিস আমরা গ্রহণ করি। আর খারাপ জিনিস বর্জন করি। একদল মানুষ রাজ্যের উন্নয়নের যাত্রাকে স্তব্ধ করতে চাইছে। আর আমরা মপ্নে করি সবার ওপরে মানুষ সত্য। মানুষের পরিষেবার জন্যই এই উন্নয়ন করা হচ্ছে। পর্যটন দপ্তরের আর্থিক সহযোগিতায় এই কাজ সম্পন্ন হল।’