Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


May 30, 2018

Bengal’s lightning detection system helping common people

Bengal’s lightning detection system helping common people

The lightning detection system put up under the initiative of the State Disaster Management and Civil Defence Department has been a saviour of sorts in many districts across Bengal. The state-of-the-art system was introduced on February 1 this year, using which lightning can be predicted and information, with specific location, disseminated. An American company had put the system in place.

Devices like sensors have been installed at places including Siliguri, Cooch Behar, Raiganj, Jangipur (in Murshidabad district), Haldia, Kolkata and Kharagpur.

The system generates an SMS alerting people at least 45 minutes before a lightning strike. The alert messages contain names and location of the blocks where lightning would strike.

Officials up to the level of block development officer (BDO) and members of panchayats receive the alerts. They then disseminate the information amongst the locals within a short span of time and people take precautions as prescribed.

District Magistrates also receive alerts and can coordinate with the concerned officials in this connection and it helps in taking prompt action and saving more lives.

According to a senior official of the Disaster Management Department, this is the first time that such a system is being used, and helpfully, at a time when lightning strikes have gone up drastically.

Usually, heavy lightning occurs from mid-April till the end of monsoon. The system has proven fruitful as the officials are receiving good feedback as to how it is helping people to move to a safer place after getting the alert that lightning might strike.

The system is helping generate alarm among people even in the furthest corners of the State and so people are getting time to move to a safer place before lightning strikes.

 

Source: Millennium Post


মে ৩০, ২০১৮

বজ্রপাতের পূৰ্বাভাষের ফলে উপকৃত গ্রাম বাংলা

বজ্রপাতের পূৰ্বাভাষের ফলে উপকৃত গ্রাম বাংলা

রাজ্য বিপর্যয় ব্যবস্থাপনা ও অসামরিক প্রতিরক্ষা দপ্তর গত পয়লা ফেব্রুয়ারী চালু করে বজ্রপাতের পূর্বাভাষ ব্যবস্থা। এর মাধ্যমে বজ্রপাতের ৪৫ মিনিট আগে এসএমএসের মাধ্যমে স্থানীয় প্রশাসনকে ‘এলার্ট মেসেজ’ পাঠানো হয়, যাতে সাধারণ মানুষ নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে পারেন। এর ফলে উপকৃত হয়েছেন গ্রাম বাংলার বহু মানুষ।

এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে কোনও একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলে বজ্রপাতের পূর্বাভাষ দেওয়া সম্ভব। আমেরিকার এক বিশেষজ্ঞ কমিটির সহযোগিতায় এই কাজ করছে রাজ্য বিপর্যয় ব্যবস্থাপনা ও অসামরিক প্রতিরক্ষা দপ্তর।

সাধারণত এপ্রিলের মাঝামাঝি থেকে বর্ষাকালের শেষ পর্যন্ত বজ্রপাতের ঘটনা বেশী ঘটে।

কিছুদিন আগেই মাত্র ছ’ঘণ্টার মধ্যে ১১০টি বজ্রপাতের সতর্কতা আসে। এই সতর্ক বার্তায় যে অঞ্চলে বাজ পড়বে সেই অঞ্চলের অবস্থান ও নাম জানা যায়। বিডিও স্তরের আধিকারিক ও পঞ্চায়েতের সদস্যরাও এই সতর্ক বার্তা পেয়ে থাকেন। এরপরেই স্থানীয় মানুষকে খুব তাড়াতাড়ি নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়ার উদ্যোগ নেয় প্রশাসন।

এই যন্ত্রটি বসানো হয়েছে শিলিগুড়ি, কোচবিহার, রায়গঞ্জ, জঙ্গিপুর, হলদিয়া, কলকাতা ও খড়গপুরে।