Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


May 22, 2018

Cyber crime police stations in every district

Cyber crime police stations in every district

Cyber crimes are increasing day by day. Posts in poor taste, provocative posts, hacking others’ accounts, etc. on social media and other cyber crimes like banking frauds, etc. are on the rise here, as in so many places across the world.

To combat such online crimes originating in Bengal, the State Government has decided to firm up its cyber crime fighting capabilities. For a start, it is being planned to set up cyber crime police stations in the districts.

Right now there is a cyber crime setup at the police headquarters in Lalbazar, Kolkata. However, having only one such unit hampers proper investigations of such crimes.

The State Police Department is now carrying on a study on which districts to set up the cyber crime-fighting units in, depending on where most crimes emanate from. Gradually such units will be set up in all the districts.

A group of police personnel are given special training on how to handle such crimes. Officers to operate from these district-based cyber crime police stations would be selected from this group. The computers in the police stations would be installed with the special software.

Plans are on to open some police stations this year itself. Budget requirements are being prepared. The Police Department would send the proposals to the Government soon.

 


মে ২২, ২০১৮

জেলাগুলিতে গড়ে তোলা হবে সাইবার ক্রাইম থানা

জেলাগুলিতে গড়ে তোলা হবে সাইবার ক্রাইম থানা

শুধু মহানগরীই নয়, জেলায় জেলায় বাড়ছে সাইবার অপরাধ। শহরের পাশাপাশি গ্রামের মানুষের হাতে হাতে ঘুরছে অ্যানড্রয়েড মোবাইল। সঙ্গে বাড়ছে ইন্টারনেটের ব্যবহার। তাই কয়েকবছর আগেও যে সাইবার অপারধের সংখ্যা জেলাগুলিতে ছিল হাতেগোনা, তা বিগত দু’-তিন বছরে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে। অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে টাকা তুলে নেওয়ার ঘটনা ঘটছে একাধিক জেলাতেও।

সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে কুরুচিপূর্ণ পোস্ট থেকে শুরু করে অনলাইনে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তথ্য হাতিয়ে টাকা তুলে নেওয়ার মতো ঘটনার সংখ্যা বেড়েই চলেছে। আগামী দিনে এই ধরনের ঘটনার মোকাবিলায় এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে চাইছে রাজ্য। যাতে আগেভাগেই অপরাধকে নিয়ন্ত্রণে আনা যায়। আর সেই কারণে প্রতিটি জেলাতেই সাইবার ক্রাইম পুলিস থানা গড়ে তুলতে চাইছে রাজ্য। কীভাবে তা বাস্তবায়িত করা যায়, তার পরিকল্পনা তৈরি করছেন রাজ্য পুলিসের অধিকর্তারা।

জেলায় কোনও সাইবার অপরাধ ঘটলে এক্ষেত্রে ভরসা সিআইডি’র সাইবার ক্রাইম ইউনিট। থানায় অভিযোগ দায়ের হলেও পুলিসের তদন্তের খুব বেশি কিছু থাকে না। অভিযোগ জানানোর পরও অনেক ক্ষেত্রে অভিযুক্ত অধরা থেকে যায়। পরিকাঠামো না থাকার কারণে ইচ্ছা থাকলেও তদন্ত করে উঠতে পারেন না জেলা পুলিসের অফিসাররা। অনেক কেসেরই সমাধান করা যায় না। মাঝপথেই থমকে যায় তদন্ত। সূত্র খুঁজতে সিআইডি’র উপরই পুরোপুরি ভরসা করতে হয়। এই কাজ করতে গিয়ে অনেক দিন সময় চলে যায়। অপরাধ করেও অনেক ক্ষেত্রে পার পেয়ে যায় অভিযুক্ত। একইসঙ্গে সরকারকে জড়িয়ে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে বিভিন্ন সময়ে কুৎসা করা হচ্ছে। জেরায় থানায় এই নিয়ে অভিযোগ আসার পর তদন্ত করতে গিয়ে হোঁটচ খেতে হচ্ছে জেলার থানাগুলিকে। অভিযুক্তকে ধরা থেকে শুরু করা তদন্ত সমস্ত কাজটাই করতে হচ্ছে সিআইডিকেই। এর ফলে চিন্তা বেড়েছে পুলিসকর্তাদের। এই পরিস্থিতিতে বিভিন্ন জেলায় সাইবার ক্রাইম থানা গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে খবর।

পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, কোন কোন জেলায় সাইবার ক্রাইম গড়ে তোলা হবে, তা নিয়ে সমীক্ষার কাজ চলছে। দেখা হচ্ছে, কোন জেলা থেকে সাইবার অপরাধের অভিযোগ বেশি আসছে। তার ভিত্তিতেই ঠিক করা হবে কোন জেলাকে এ ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। ধাপে ধাপে অন্যান্য জেলায় কাজ শুরু করা হবে বলে খবর।

সাইবার ক্রাইম থানায় তদন্ত করার জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত অফিসারদেরই রাখা হবে। যাতে তদন্ত করতে সুবিধা হয়। সেকথা মাথায় রেখেই নতুন অফিসারদের সাইবার অপরাধ নিয়ে বিশেষ পাঠ দেওয়া হচ্ছে। বিশেষ ধরনের সফটওয়ার রাখা হবে প্রতিটি থানায়। যাতে দ্রুত অপরাধের কিনারা করা যায়। রাজ্য পুলিসের কর্তারা চলতি বছরেই কিছু জেলায় সাইবার ক্রাইম থানা চালু করে দিতে চাইছেন। এ জন্য বাজেট থেকে শুরু করে অন্যান্য পরিকল্পনার খসড়া তৈরি করে ফেলা হয়েছে। খুব শীঘ্রই এই প্রস্তাব নবান্নে পাঠানো হবে।