Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


May 8, 2018

Sugar cess is against the principle of GST: Amit Mitra

Sugar cess is against the principle of GST: Amit Mitra

Bengal Finance Minister Dr Amit Mitra, in a television interview on a national channel last night, spoke strongly against the Central Government’s intention to impose cess on sugar, saying it is against the principle of the goods and services tax (GST). Not just Bengal, Kerala, Tamil Nadu and Delhi have also spoken against the issue. Dr Mitra also spoke on a range of issues.

To pass the decision of sugar cess, the Centre has formed a five-member panel, comprising five finance ministers. Another panel has been formed by the Centre for incentivizing digital payments, which has Dr Amit MItra as a member.

On sugar cess

The idea of GST was meant to subsume all cesses; cesses will only be there for compensating States for specified items, like a few luxury goods and some others. The Centre’s decision to put a cess on sugar is arbitrary, he said. This will only set a precedent for States asking for cesses on specific goods in their own interests, and so the whole idea of GST will be lost.

Even then, it would be implemented wrongly – the Centre would give the income from the cess to the sugar mills, and they would pass it on to the farmers; however, the money would not really reach the farmers, just the sugar mill owners. And it would benefit only one state, which is Uttar Pradesh. Since the committee on sugar cess has mostly BJP finance ministers, it would only toe the line of the Centre. Bengal, as with so many other States, would suffer because the cess would comprise of an additional Rs 3 per kg of sugar. The cess would simply bring in a process of destabilisation.

Revenue deficit of States as a result of GST

Dr Mitra had expressed concern in May 2017 regarding revenue slippage as a result of GST. The structure of the forms, like GSTR-1, GSTR-2 and GSTR-3b, were not ready. Now, 31 States are facing a revenue deficit. He had suggested pilot projects to see how things work out and remove any creases. But that was not done. So the implementation of GST by the Central Government was very shoddy, just like demonetisation earlier.

For the lack of pilot projects, another issue has come up: small and medium enterprises (SME) are specially suffering because they are unable to uplink to fill the forms online because of technical glitches. This is a major issue that has to be solved.

The revenue of the Central Government not picking up is deeply concerning. From where will the Centre get the money for compensating the States, he asked.

An alternative to the BJP: the Federal Front

A great discontent in the country has given rise to the need of a federal alliance. Mamata Banerjee and many other leaders have been speaking on the subject. Coupled with the fall in GDP since 2013-14, a massive messaging from the top is bringing people together. This is resulting in attacks on different people. TV news is full of incidents from all over the country, whether it be an attack on SC/ST communities or for carrying beef, or a killing in the train…there is a rise of people who feel disenfranchised.

Bengal never celebrated Ram Navami in a mass manner as there are so many Gods and Goddesses, so many religious festivals in the State that there was no need to focus on just this. The whole stability in diversity is now being centralized into Ram. A new perspective is slowly creeping into the psyche of people, and once it goes down, it gives rise to lumpens who catch that messaging.

A deeper analysis will reveal why a federal front is emerging. Discontent, disillusionment and the undermining of the subaltern…it’s an evolutionary process out of the feeling that people could have done better. Political economy, sociological process and economics are coming together to give rise to the federal front idea. It’s slow growth on the one hand, and a plethora of discontents.

MamataBanerjee is very accommodative. She has repeatedly said she is not interested in the chair. She wants to see these forces that the people are disillusioned with replaced with a better alternative for the nation.


মে ৮, ২০১৮

চিনির ওপর অতিরিক্ত সেস, বিরোধিতায় বাংলা

চিনির ওপর অতিরিক্ত সেস, বিরোধিতায় বাংলা

চিনির ওপর অতিরিক্ত সেস বসানোর কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করলেন পশ্চিমবঙ্গের অর্থমন্ত্রী ডঃ অমিত মিত্র। একটি টেলিভিশন সাক্ষাতকারে তিনি জানান যে পশ্চিমবঙ্গ সরকার এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করছে। তিনি বলেন, শুধুমাত্র বাংলা নয়, কেরল, দিল্লী এবং তামিল নাড়ুও এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছে।

এই প্রস্তাব যাতে গৃহীত হয় তার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার একটি পাঁচ সদস্যের প্যানেল তৈরি করে যার মধ্যে আছে পাঁচটি রাজ্যের অর্থমন্ত্রী। আরেকটি প্যানেল তৈরি হয়েছে যা কিনা ডিজিটাল সম্প্রসারণ করার কাজ করবে, যার সদস্য হলেন ডঃ অমিত মিত্র।

অমিতবাবুর মতে, জিএসটি লাগু করার অন্যতম উদ্দ্যেশ্য ছিল সমস্ত সেস তুলে দিয়ে একটি মাত্র কর চালু করার, শুধুমাত্র কিছু নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ও লাক্সারি গুড্স বাদে। কিন্তু চিনির ওপর সেস লাগু করার মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকার নজির স্থাপন করছে ভবিষ্যতে খেয়ালখুশি মত যে কোনও দ্রব্যের ওপর সেস লাগিয়ে দেওয়ার। এতে জিএসটির মূল উদ্দেশ্যের লঙ্ঘন হবে।

ওনার বক্তব্য অনুযায়ি, সেস চালু হলেও কৃষকরা এর সুবিধা পাবেন না। কেন্দ্রীয় সরকার সেস থেকে প্রাপ্ত টাকা মিলমালিকদের দেবে যাতে সেটা কৃষকদের কাছে পৌঁছাতে পারে। কিন্তু বাস্তবে তা হয় কি? তিনি ও বলেন যে এই সেস লাগু হলে শুধুমাত্র উত্তরপ্রদশের লাভ হবে, এবং এর ফলে আমাদের রাজ্যে চিনির দাম কম ৩ টাকা বেড়ে যাবে। উনি এর কড়া নিন্দা করেন।

তিনি আরও বলেন যে জিএসটি চালু করার আগে পরিকাঠামো ঠিক করে নির্মাণ করা হয়নি যার ফলে ৩১টি রাজ্যের রাজস্ব ঘাটতি হয়েছে। তিনি বলেন কেন্দ্রকে একটি পাইলট প্রজেক্ট চালু করার সুপারিশ করা হয়েছিল কিন্তু তারা কর্ণপাত করেননি। জিএসটির ফলে ক্ষুদ্র, মাঝারি শিল্পের প্রভূত ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান।