Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


May 4, 2018

Only ‘Ghashphool’ matters, others are just fakes: Abhishek Banerjee at Purulia rallies

Only ‘Ghashphool’ matters, others are just fakes: Abhishek Banerjee at Purulia rallies

‘Ghashphool’ is the only flower that matters, the others are fake, said MP and All India Trinamool Youth Congress Chairperson Abhishek Banerjee at two rallies yesterday at Barabazar and Manbazar in Purulia district. The MP is also the party’s district in-charge.

With a pointed reference to the party with lotus as its symbol, the youth chief said that on the day of election, only ghashphool, that is, Trinamool Congress, would be of consequence. He said that from gram panchayats to panchayat samitis to zilla parishads, Trinamool Chairperson Mamata Banerjee has nominated candidates, and asked the people to vote for them.

In this connection, he said that the erstwhile ‘harmads’ of CPI(M) are now ‘ustads’ with the BJP – the same vicious people, unsatisfied with the CPI(M), just changed their political affiliations and are now chanting ‘Shri Ram’ while donning the saffron garb.

Referring to the Opposition parties, he said they are afraid of elections. Hence they are bent on instigating trouble and for the same reason, trying to throw the voting process off track by taking recourse to legal proceedings.

Another topic he touched on was the communal conflict being brought on by the BJP. He said taking out processions on Ram Navami and Mahavir Jayanti with weapons in hand is a BJP import, as these were never seen before 2014. True Hinduism, he emphasised, entails embracing the other with respect, not fighting and turning peoples and communities against each other.

Abhishek Banerjee asked the people to give the Opposition a fitting reply by voting for Trinamool Congress.

 

Source: Sangbad Partidin

 


মে ৪, ২০১৮

সিপিএমের হার্মাদরাই আজ বিজেপির ওস্তাদ: অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়  

সিপিএমের হার্মাদরাই আজ বিজেপির ওস্তাদ: অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়  

‘সিপিএমের হার্মাদরাই আজ বিজেপির ওস্তাদ৷’পুরুলিয়ার জঙ্গলমহলে নির্বাচনী জনসভা করতে এসে গেরুয়া শিবির-সহ সিপিএমকে এভাবেই বিঁধলেন যুব তৃণমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন বরাবাজারের ইন্দটাঁড় ময়দান থেকে সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় পঞ্চায়েত ভোটে নির্বাচনী জনসভা শুরু করেন৷ তারপর ওই সভা শেষে মানবাজার আসেন৷ এদিন দুটি জনসভা থেকেই বিজেপি ও সিপিএমকে তুলোধনা করে সাংসদ তথা দলের জেলার পর্যবেক্ষক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “যারা সিপিএমে থেকে হতাশ হয়ে গিয়েছেন, তারাই আজ গায়ে গেরুয়া জড়িয়ে জয় শ্রীরাম বলছেন। আজ থেকে পাঁচ বছর আগে যখন আমি এই জঙ্গলমহলে এসেছিলাম তখন এই গ্রামের কয়েকটি দেওয়ালে দেখেছিলাম কাস্তে–হাতুড়ি আঁকা। সেই বাড়ির দেওয়াল গুলিতেই এখন দেখা যাচ্ছে আঁকা রয়েছে পদ্মফুল। একসময় যারা সিপিএমের হার্মাদ ছিল তারাই আজ বিজেপির ওস্তাদ৷ এই বিজেপি ধর্মীয় মেরুকরণ করে বাংলাকে বিভাজন করতে চাইছে৷ কিন্তু এই বাংলার সংস্কৃতি বা হিন্দু ধর্ম বিভাজন শেখায়নি৷ বরং হিন্দু ধর্মের নীতি হল অন্যধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল৷ ২০১৪ সালের আগে রামনবমী ও মহাবীর জয়ন্তীতে এভাবে অস্ত্র নিয়ে রাস্তায় নামতে দেখা যায়নি৷ ভিন রাজ্যের সংস্কৃতিকে বিজেপি এখানে টেনে আনছে৷ কিন্তু এই বাংলা টাকা দিয়ে গেরুয়া হবে না৷ এই বাংলা সম্প্রীতির বাংলা৷’’

সেই সঙ্গে বিরোধীদের মনে করিয়ে দেন, আগামী ১৭ মে ব্যালট বক্স খুললেই চারদিক থেকে শুধু জোড়া ফুল বেরিয়ে পড়বে। সেদিনই হবে সবুজ আবির খেলার দিন৷

মানবাজারের জনসভা থেকেই আবারও সাংসদ মনে করিয়ে দেন গ্রামসভা থেকে পঞ্চায়েত সমিতি সহ জেলা পরিষদে তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই প্রার্থী৷ তাই ১৪ মে ভোটের দিন আসল ফুল ঘাস ফুলকে ভোট দিন৷ এই ভোটের বাজারে আর যে সব ফুল আছে তা নকল৷

এদিন দু’টি জনসভাতেই বিরোধীদের আক্রমণ করে সাংসদ অভিষেক বলেন, “ওরা ভোটকে ভয় পাচ্ছে৷ তাই শুধু আদালতে যাচ্ছে৷ ওরা ভোট বানচাল করতে চাইছে৷ আসলে যারা সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশে থাকেন তারা ভোটে যান৷ আর যাদের সারা বছর দেখা পাওয়া যায় না তারা যান কোর্টে৷’’