Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


December 1, 2018

Bangla no. 1 in preventing parent-to-child transmission of HIV: Mamata Banerjee

Bangla no. 1 in preventing parent-to-child transmission of HIV: Mamata Banerjee

Bangla has been adjudged the best State in the country in the prevention of parent-to-child transmission of HIV (human immunodeficiency virus), which leads to AIDS. On the occasion of World AIDS Day, Mamata Banerjee shared this piece of information on Twitter.

“I am happy to share with all of you that as per the assessment done by NACO for ‘Prevention of Parent to Child Transmission of HIV’ programme for 2017-18, Bangla has emerged No. 1 in the country,” the tweet read.

In her tweet, Mamata Banerjee has also said that, with the proper implementation of the Prevention of Parent to Child Transmission (PPCT) programme, the State Government has enabled 16.5 lakh pregnant women from Bangla in preventing the transmission of HIV to their newborn children.

It may be mentioned that for those adults and children found HIV positive, the Government provides free treatment through Anti-Retroviral Therapy Centres situated in sub-divisional, district and medical college hospitals.


ডিসেম্বর ১, ২০১৮

সদ্যোজাতদের মধ্যে এইচআইভি সংক্রমণ প্রতিরোধে দেশের সেরা বাংলা: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

সদ্যোজাতদের মধ্যে এইচআইভি সংক্রমণ প্রতিরোধে দেশের সেরা বাংলা: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

বাবা-মায়ের থেকে সন্তানদের শরীরে এইচ আই ভি ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে দেশের মধ্যে বাংলা সবচেয়ে ভালো কাজ করছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইট করে একথা জানান।

ট্যুইটারে তিনি লেখেন, ‘আমি অতি আনন্দের সঙ্গে আপনাদের জানাচ্ছি, প্রিভেনশন অফ পেরেন্ট টু চাইল্ড ট্রান্সমিশন অফ এইচ আই ভি প্রকল্পের ২০১৭-১৮ র কাজে বাংলা এক নম্বর স্থান অধিকার করেছে। কেন্দ্রীয় ন্যাশনাল এইডস অর্গানাইজেশন (ন্যাকো) এই স্বীকৃতি দিয়েছে।’

ট্যুইটারে তিনি লেখেন, এই প্রকল্পের অধীনে এ রাজ্যের ১৬ লক্ষ ৫০ হাজার গর্ভবতী মহিলা সুফল পেয়েছেন। এছাড়াও যারা এইচ আই ভি পজিটিভ তাদের সম্পূর্ণ বিনামূল্যে চিকিৎসা-পরিষেবা দেয় রাজ্য সরকার।

প্রসঙ্গত, যেসকল প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ এবং শিশুদের এইচআইভি সংক্রমণ হয়, তাদের বিনামূল্যে মহকুমা, জেলা ও মেডিক্যাল কলেজের অ্যান্টি-রেট্রোভাইরাল চিকিৎসা কেন্দ্রে বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়া হয়।