Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


December 29, 2018

43rd International Kolkata Book Fair to kick off from Jan 30

43rd International Kolkata Book Fair to kick off from Jan 30

The 43rd International Kolkata Book Fair will commence from January 30, 2019, at the Central Park fairground. This year’s focus country will be Guatemala. Also, Iran will be participating in the fair for the first time.

Chief Minister Mamata Banerjee will be inaugurating the Book Fair. During last year’s book fair, almost 2 million book lovers visited and books worth Rs 22 crore were sold.

There will be books in 24 local languages of Guatemala. Prominent publishers from neighbouring stores too will take part. There will be more than 600 book stalls and about 200 little magazine stalls.

Apart from the fair, the 6th Kolkata Literature Festival will be held from January 7 to January 9 at the same venue. Distinguished writers, poets, directors, historians and other personalities from various fields will grace the occasion.


ডিসেম্বর ২৯, ২০১৮

বইমেলায় এবার ৬০০ স্টল

বইমেলায় এবার ৬০০ স্টল

৪৩তম আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলা ২০১৯ এবারও হবে সল্টলেক সেন্ট্রাল পার্কে। এবারের থিম কান্ট্রি গুয়াতেমালা। ৩০ জানুয়ারি বইমেলা শুরু। সল্টলেকেই হচ্ছে বইমেলা।

এই প্রথম আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলায় যোগ দিতে আসছে ইরান। প্রতি বছরের মত থাকছে ব্রিটেন, আমেরিকা, চীন, জাপান, রাশিয়া, ভিয়েতনাম, লাতিন আমেরিকা, বাংলাদেশের স্টলও। দেশের অন্যান্য রাজ্য থেকেও প্রকাশকেরা যথারীতি থাকবেন। ২০১৯ সাল মহাত্মা গান্ধীর সার্ধ জন্মশতবর্ষ। তাই বইমেলার নানা অনুষ্ঠানে তাঁকে স্মরণ করা হবে।

ঐতিহাসিক মায়াসভ্যতার অন্যতম কেন্দ্রভূমি গুয়াতেমালা। সেখানকার প্রকৃতি, ঐতিহ্য নিয়ে সেজে উঠবে প্যাভিলিয়ন। গুয়াতেমালার ২৪টি স্থানীয় ভাষার সাহিত্য, কবিতার বই থাকবে।

এবার বইমেলায় থাকবে ৬০০–র বেশী স্টল। লিটল ম্যাগাজিনের স্টল থাকছে ২০০টি। ২০১৭–র মিলনমেলার বিক্রীকে ছাপিয়ে গেছে ২০১৮–র সল্টলেক বইমেলার বিক্রী। নিরাপত্তার জন্য গিল্ডের তরফে এ বছরও থাকছে আরও আধুনিক মোবাইল অ্যাপ। বইমেলা চলবে ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

কাজ চলার জন্য মিলনমেলা থেকে গত বছরই সরিয়ে আনা হয়েছে বইমেলার ঠিকানা। রাজ্য সরকার, বিধাননগর পুরসভা, পুলিসের সহযোগিতায় ঠিকানা বদল হলেও জমে উঠেছিল মেলা। যাতায়াতের সুবিধের জন্য এবারও থাকবে বাড়তি বাসের ব্যবস্থা।