Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


December 27, 2018

Bangla Fasal Bima Yojana to benefit farmers

Bangla Fasal Bima Yojana to benefit farmers

To give relief to farmers, the Bangla Government had announced the waiving off of all taxes and mutation fees related to agricultural lands.

It had also announced that the government would pay the farmers’ premium too under the Bangla Fasal Bima Yojana.

Now a notice has been brought out asking all farmers to fill up the relevant form for availing of the scheme for the 2018-19 rabi season and submit it by December 31, 2018.

For details, one can contact the ADA office or call up the toll-free number, 1800 103 1100.

The relevant rules, as published in the government advertisement, are as follows: (bulletted points)

For the rabi season 2018-19, the rabi season crops of wheat, maize, Bengal gram, masoor, mustard, potato and sugarcane, and the summer crops of boro paddy, maize, moong, sesame and groundnut, can be insured.

Only for the commercial crops of potato and sugarcane do farmers have to bear a part of the premium – maximum of 4.85 per cent.

Farmers in debt should contact their nearest relevant bank branch and submit the necessary documents

Farmers not in debt should visit the relevant insurance company representative, ADA office of bank branch with their bank passbook, Aadhaar number and crop planting certificate.

As per the agreement between the government and the insurance companies, all insurance companies are organising awareness camps in every gram panchayat and block.

 


ডিসেম্বর ২৭, ২০১৮

কৃষকদের জন্য আবারও খুশির বার্তা আনল রাজ্য সরকার

কৃষকদের জন্য আবারও খুশির বার্তা আনল রাজ্য সরকার

গত সাত বছরে রাজ্য সরকার কৃষকদের জন্য নিয়েছে একাধিক যুগান্তকারী পদক্ষেপ। সেই উদ্যোগের রেশ টেনে বাংলাই দেশের একমাত্র রাজ্য যেখানে সরকার কৃষি জমির খাজনা ও মিউটেশন-এর খরচ সম্পূর্ণ মুকুব করেছে।

এই রাজ্যে বাংলা ফসল বীমা যোজনা করা হয় সম্পূর্ণ বিনা খরচায়। কৃষকদের বীমার পুরো টাকা দিচ্ছে রাজ্য সরকার। ২০১৮-১৯ রবি মরশুমে রবি ফসল-গম, ভুট্টা, ছোলা, মুসুরি, সর্ষে, আলু ও আখ এবং গ্রীষ্মকালীন ফসল-বোরো ধান, ভুট্টা, মুগ, তিল ও বাদাম এর জন্য বীমা করা যাবে।

শুধুমাত্র বাণিজ্যিক ফসল-আলু ও আখের জন্য প্রিমিয়ামের সর্বাধিক ৪.৮৫% কৃষকদের দিতে হবে বাকি ব্যয় বহন করবে রাজ্য সরকার। ঋণী চাষিদের তাদের সম্পর্কিত ব্যাঙ্কে যোগাযোগ করতে ও নির্ধারিত কাগজ জমা দিতে বলা হয়েছে। অঋণী চাষিদের ব্যাঙ্ক পাশ বই, আধার এবং ফসল রোপণের শংসাপত্র সহ বীমা কোম্পানির প্রতিনিধি, এ.ডি.এ. অফিস অথবা নিকটবর্তী ব্যাঙ্কের সাথে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

চুক্তি মোতাবেক প্রত্যেক বীমা কোম্পানি এই উদ্দেশ্যে গ্রাম পঞ্চায়েতে/ব্লক সচেতনতা শিবিরের আয়োজন করছে। আবেদনপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ৩১শে ডিসেম্বর, ২০১৮। বিস্তারিত জানার জন্য যোগাযোগ করতে হবে এ.ডি.এ. অফিসে অথবা ফোন করতে হবে মাটির কথা টোল ফ্রী নম্বরে ১৮০০১০৩১১০০।