Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


December 26, 2018

Bangla Govt to start Kadaknath chicken farming as pilot project in Darjeeling

Bangla Govt to start Kadaknath chicken farming as pilot project in Darjeeling

The West Bengal Swarojgar Corporation Limited (WBSCL) is planning to start a pilot project in Darjeeling for the farming of Kadaknath chicken, which is known for its exquisite taste and high nutritional value.

The standing committee of the state Assembly associated with the state Self-Help Group & Self Employment department recently visited Darjeeling and found that around a dozen families have taken up chicken farming of the Kadaknath variety in a successful manner.

A senior WBSCL official said the organisation has identified areas in Darjeeling where the pilot project would be started.

The official also said that the meat from Kadaknath chickens will be of great benefit to health-conscious people because of its medicinal values, which include lower cholesterol, higher iron content, and anti-cancer properties.

At present there are a handful of farms scattered across Bangla that deal with the supply of Kadaknath variety, but planned intervention from the government can boost the number.

Source: Millennium Post


ডিসেম্বর ২৬, ২০১৮

দার্জিলিঙে কড়কনাথ মুর্গী প্রতিপালন শুরু করবে রাজ্য সরকার

দার্জিলিঙে কড়কনাথ মুর্গী প্রতিপালন শুরু করবে রাজ্য সরকার

দার্জিলিঙে কড়কনাথ মুর্গী প্রতিপালন শুরু করার পরিকল্পনা নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ স্বরোজগার নিগম। এই প্রজাতির মুর্গীর স্বাদ যেমন সুস্বাদু, তেমনই পুষ্টিগত কারণেও জনপ্রিয়।

বিধানসভায় স্বনির্ভরগোষ্ঠী ও স্বনিযুক্তি দপ্তর বিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্যরা সম্প্রতি দার্জিলিং যান। সেখানে তারা দেখেন যে প্রায় এক ডজন পরিবার খুব সাফল্যের সঙ্গে কড়কনাথ মুর্গী প্রতিপালন করছে।

দপ্তরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন দার্জিলিঙে এই মুর্গী প্রতিপালন করার পাইলট প্রকল্প শুরু করা হবে। এর জন্য জমি ইতিমধ্যেই দেখা চিহ্নিত করা হয়েছে। তার মতে, কড়কনাথ মুর্গীর মাংস রক্তে কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমাতে সাহায্য করে, লোহার পরিমাণ বাড়াতে সাহায্য করে। এতে ক্যান্সার বিরোধী উপাদানও আছে।

এই মুহূর্তে হাতে গোনা কয়েকটি খামার এই মুর্গীর যোগান দেয়। সেই সংখ্যা বাড়াতে উদ্যোগী রাজ্য।