Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


December 7, 2018

State Govt to start rock climbing as extra-curricular subject for school students

State Govt to start rock climbing as extra-curricular subject for school students

The State Government has decided to introduce rock climbing training as a part of extra-curricular activities for students from class V to VIII.

There are many boys and girls who are adventure-loving but lack the facilities and/or time for proper training. They are often inspired by seeing such activities on television or on internet.

Including rock climbing in the syllabus would make it much easier for such students to acquire the required training.

Rock climbing is, in fact, a life skill. It has the capacity to give people confidence and courage, and keep them physically active. The course to be introduced would also give students the training to rescue people.

Other courses to be introduced as extra-curricular subjects at the school level are script-writing for plays, acting, news editing, etc.

Source: Bartaman


ডিসেম্বর ৭, ২০১৮

এবার ক্লাসের ফাঁকেই মিলবে পাহাড়ে চড়ার শিক্ষা, পাবে মিউজিয়াম তৈরির প্রশিক্ষণও

এবার ক্লাসের ফাঁকেই মিলবে পাহাড়ে চড়ার শিক্ষা, পাবে মিউজিয়াম তৈরির প্রশিক্ষণও

অ্যাডভেঞ্চারপ্রেমী কিশোর-কিশোরীদের এবার ক্লাসের মধ্যেই স্বপ্নপূরণ হতে চলেছে। পড়াশোনার মাঝে অন্য রকমের চর্চা বা ‘এক্সট্রা কারিকুলার অ্যাক্টিভিটিজ’ হিসেবে রক ক্লাইম্বিংকেও অন্তর্ভুক্ত করতে নির্দেশ দিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণীর পড়ুয়ারা এই সুযোগ পাবে। স্কুলের কাছাকাছি ছোট পাহাড় বা কৃত্রিম পরিকাঠামো থাকলে, তবেই এই উদ্যোগ নিতে পারবে স্কুলগুলি।

যাদের অ্যাডভেঞ্চারের পাশাপাশি ভূগোল-ইতিহাসের প্রতি ভালোলাগা আছে, তাদের জন্য থাকছে মিউজিয়াম তৈরীর প্রশিক্ষণ। স্থানীয়ভাবে প্রাপ্ত পাথর, মাটির নমুনা, গাছ-গাছালি, পশুপাখি বা কীটপতঙ্গের দেহাবশেষ সংগ্রহ করে সাজানো যাবে স্কুলের ছোট মিউজিয়াম। সেটাও কম অ্যাডভেঞ্চারের নয়। টিভি’র দৌলতে খুদে বা কিশোররা এখন আফ্রিকা বা আন্টার্কটিকার জীব বৈচিত্র সম্পর্কে অনেক বেশি জানে। কিন্তু তারা স্থানীয় জীব বৈচিত্র নিয়ে ততটা ওয়াকিবহাল নয়। এই ধরনের ক্লাস সে ব্যাপারে অনেকটাই সাহায্য করবে বলে আশা শিক্ষকদের।

তবে, ঘরে বসেও শিখে ফেলা যায় এমন বেশ কিছু রোমাঞ্চকর বিষয়ও রয়েছে। সেটা হল লাইফ স্কিল। দৈনন্দিন জীবনের বিভিন্ন কাজ করার ক্ষেত্রে আমরা অনেক সময়ে সঠিক পদ্ধতি মেনে চলি না। তাতে কাজ সারতে অনেকটাই দেরি হয়, পরিশ্রমসাধ্যও হয়। লাইফ স্কিল হল সেসবই সহজে সেরে ফেলার শিক্ষা। এছাড়াও, কোনও ছোটখাট বিপদের ক্ষেত্রে কী করা উচিত, তাও শেখা যাবে। পাশাপাশি পরিচ্ছন্নতা, জীবনশৈলী বা বয়ঃসন্ধি শিক্ষার মতো বিষয়ও রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে নাটকের স্ক্রিপ্ট লেখা, অভিনয়, সংবাদ সম্পাদনার মতো বিষয়, যা ছাত্রছাত্রীদের বিশেষ দিক উন্মোচিত করবে।

সৌজন্যেঃ বর্তমান