Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


July 4, 2018

Bengal Govt to make PET & CT scans free for patients admitted to Govt hospitals

Bengal Govt to make PET & CT scans free for patients admitted to Govt hospitals

The Bengal Government has decided to make PET and CT scans, essential for detecting cancer and other diseases, free for all patients admitted to Government hospitals. For this purpose, the State Government has allotted an amount of Rs 12 crore per year.

The scans would be done at NRS Medical College and Hospital in Kolkata, one of the premier State Government hospitals. Patients admitted to any Government hospital requiring scans would be brought in ambulances to NRS Medical College and after the scans are completed, would be returned to their respective hospitals in ambulances. The reports would be done in two to three days, which would need to be collected by family members of the patients.

Till now, these tests were done at NRS Hospital too, on a PPP basis, but patients had to pay Rs 15,000 per scan. At private hospitals, such scans cost Rs 20,000 to 30,000.

According to the State Health Department, on an average, 350 patients per month, or 4,200 per year, admitted to various Government hospitals require these scans to be done.

Source: Bartaman


জুলাই ৪, ২০১৮

ক্যান্সার নির্ণয়ে জরুরি পেট সিটি স্ক্যানও এবার বিনামূল্যে হবে এনআরএস-এ

ক্যান্সার নির্ণয়ে জরুরি পেট সিটি স্ক্যানও এবার বিনামূল্যে হবে এনআরএস-এ

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে ক্যান্সার নির্ণয়ের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পেট সিটি স্ক্যান পরীক্ষা এবার থেকে হবে বিনামূল্যে। রাজ্য সরকার এ বাবদ আনুমানিক ১২ কোটি টাকা বছরে বরাদ্দ করতে চলেছে। বর্তমানে পিপিপি মডেলে এই পরীক্ষা চলে। গোটা রাজ্যের সমস্ত সরকারি হাসপাতাল এবং মেডিক্যাল কলেজের মধ্যে একমাত্র এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পরীক্ষাটি হয়। পরীক্ষার জন্য সরকারি রেট ১৫ হাজার টাকা।

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, গোটা রাজ্যের যে কোনও সরকারি হাসপাতাল ও মেডিক্যাল কলেজের কোনও রোগীর পেট সিটি স্ক্যানের দরকার পড়লে তাঁকে রেফার করা হবে এনআরএস-এ। এবং সেক্ষেত্রে তাঁর কোনও খরচই পড়বে না। রোগীকে অ্যাম্বুলেন্সে নিয়ে এসে পেট সিটি করা হবে। পরীক্ষা শেষে ফের ফিরে তিনি যাবেন নিজের হাসপাতালে। দু-তিনদিন বাদে পেট সিটির রিপোর্ট এসে নিয়ে যাবেন রোগীর বাড়ির লোকজন।

ক্যান্সার কোষের কার্যকলাপ বুঝতে এই পরীক্ষা অত্যন্ত জরুরী। অপারেশন, কেমোথেরাপি ইত্যাদি চিকিৎসার পরও রোগীর দেহে কতটা ক্যান্সার ছড়িয়েছে বা আদৌ ছড়িয়েছে কি না, ইত্যাদি তথ্য জানতে এই পরীক্ষার জুড়ি নেই। শরীরের কোথাও এই কোষ লুকিয়ে আছে কি না, তাও খুঁজে বার করা হয় এ পরীক্ষায়। রোগীর ক্যান্সার কোন পর্যায়ে আছে বা ‘স্টেজিং’ নির্ধারণ করতেও এটির ব্যবহার আছে।

গোটা রাজ্যেই সরকারিক্ষেত্রে শুধুমাত্র এনআরএস-এ হয় এই পরীক্ষা। বেসরকারিক্ষেত্রে হয় হাতেগোনা কয়েকটি কেন্দ্রে। এইসব জায়গায় পেট সিটি স্ক্যানের খরচ পড়ে গড়পড়তা ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা। সরকারি নির্দেশনামা প্রকশিত হওয়াই যা বাকি। প্রচুর গরিব মানুষের উপকার হবে। সরকার অর্ডার বার করলেই নতুন নিয়মে পেট সিটি চালু হবে।