Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


July 5, 2018

Bengal Govt to distribute 50 lakh saplings for Vanmahotsav

Bengal Govt to distribute 50 lakh saplings for Vanmahotsav

The Forest Minister recently announced that 50 lakh saplings would be given away by the State Government to MLAs, educational and other institutions across Bengal, to plant on the occasion of Vanmahotsav on July 14. The festival would go on for seven days.

Fifteen per cent of the 50 lakh would be fruit trees. All the 294 MLAs of the State would be given 1,000 saplings to plant in their own areas.

Schools, colleges, clubs, and various institutions and offices which have space to plant would be given saplings.

Saplings would be sold from the counter of the Forest Department too. Anyone can go and buy, at a rate of Rs 2 per sapling. Forest Department products like honey and citronella oil would be sold at a discount of 10 per cent.

The minister announced that, as part of the Vanmahotsav festival, neem trees would be planted across Kolkata – for shade as well as for being strong enough to be able to withstand strong winds.

The minister also made a few other announcements. Those who show good results in being able to take care of trees, including Forest Department officials and workers, would be rewarded – first prize of Rs 1 lakh, second prize of Rs 75,000 and third prize of Rs 50,000.

A special edition of the Forest Department magazine, Banabithi would also be published on the occasion of Vanmahotsav.

Source: Aajkaal


জুলাই ৫, ২০১৮

একদিনে ৫০ লক্ষ চারা পোঁতা হবে বনমহোৎসবে

একদিনে ৫০ লক্ষ চারা পোঁতা হবে বনমহোৎসবে

এবারের বনমহোৎসবের স্লোগান ‘অরণ্য ও বন্যপ্রাণ, প্রকৃতি মায়ের সবুজ দান’। স্লোগানটি লিখেছেন প্রকৃতিপ্রেমী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী পরিবেশ ও জলাভূমি সংরক্ষণের ওপর বিশেষ জোর দিয়েছেন।

১৪ই জুলাই শুরু হচ্ছে ৭ দিন ব্যাপী বনমহোৎসব। বনমন্ত্রী বলেন, ১৪ই জুলাই সারা রাজ্যে ৫০ লক্ষ গাছের চারা পোঁতা হবে। নতুন জেলা ঝাড়গ্রামের গোপীবল্লভপুরের সাঁকরাইলে এই উৎসবের সূচনা করবেন পরিবেশমন্ত্রী।

এই ৫০ লক্ষ গাছের মধ্যে ১৫ শতাংশ ফলের গাছ। বিভিন্ন জেলার মাটির চরিত্র বুঝে গাছের চারা লাগানো হবে। রাজ্যের ২৯৪টি বিধানসভার বিধায়কদের ১ হাজার করে গাছের চারা দেওয়া হবে।

প্রকৃতি ও গাছের রক্ষণাবেক্ষণ ও যত্ন এলাকার সব মানুষকেই করতে হবে। সেই সঙ্গে স্কুল, কলেজ, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, অফিস, ক্লাব যাঁদের জমি আছে, গাছের চারা দেওয়া হবে। বনদপ্তরে কাউন্টার খোলা হয়েছে। কলকাতার গাছপ্রেমীরা সেখান থেকে মনের মতো গাছ কিনতে পারবেন। গাছের চারার দাম ২ টাকা করে ধার্য করে হয়েছে। এছাড়া বন দপ্তরের মধু, সিট্রোনেলা ওয়েল বিক্রি করা হবে ১০শতাংশ ছাড়ে।

কলকাতায় নিমগাছ লাগানো হবে বেশী করে। কারণ, বনৌষধী হিসেবে এই গাছের গুরুত্ব অপরিসীম। এছাড়া শক্তপোক্ত গাছ লাগানো হবে যাতে ঝড় বৃষ্টিতে চট করে গাছ না পড়ে যায়। বিভিন্ন জেলায় ফলের গাছের পাশাপাশি লাগানো হবে শাল, সেগুন, মেহগনি ও শিশু। গোটা রাজ্যকেই সবুজ মলাটে মুড়ে ফেলার পরিকল্পনা রাজ্যের।

এছাড়া, বীরভূমে ইলামবাজারে একটি অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করা হয়েছে। পরিবেশ সচেতনতা ও জলাভূমি সংরক্ষণের ক্ষেত্রে মানুষের মধ্যে সচেতনতার প্রসার ঘটানো হবে। বনমন্ত্রী বলেন, অযথা গাছ কাটবেন না। গাছ কাটতে হলে বনদপ্তরের অনুমতি নিতে হবে। একটা গাছ কাটলে অন্তত ১০তা গাছ লাগাতে হবে।

যারা গাছের চারা রোপণ করে ভালোভাবে বড় করতে পারবেন এবং যে সব বনকর্মী গাছ বড় করার ক্ষেত্রে দক্ষতার পরিচয় দেবেন, তাদের পুরস্কার দেওয়া হবে। প্রথম পুরস্কার ১ লক্ষ টাকা, দ্বিতীয় পুরস্কার ৭৫ হাজার ও তৃতীয় পুরস্কার ৫০ হাজার টাকা। সেই সঙ্গে বনদপ্তর ‘বনবীথি’ একটি বিশেষ ম্যাগাজিন প্রকাশ করবে।

সৌজন্যেঃ- আজকাল