Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


December 10, 2018

Jalasathis ensuring safe commutes for Kolkatans

Jalasathis ensuring safe commutes for Kolkatans

The deployment of ‘jalasathis’ at transit points of inland waterways is ensuring safety and security of commuters. Commuters now feel confident in travelling in the vessels due to the presence of jalasathis at the transit points, say government officials.

It may be mentioned that the Trinamool Congress Government has taken all necessary measures to ensure the safety and security of people who travel across the Hooghly in vessels.

The government has developed jetties at the transit points following a standard operating procedure (SOP), to avoid any untoward incident. Besides upgrading the earmarked jetties, new ones were also constructed following the SOP that ensures proper illumination in the area, necessary infrastructure to prevent overloading of vessels, etc.

The SOP includes the deployment of well-trained persons at the jetties to ensure the SOPs are followed. These personnel are the jalasathis.

The jalasathis underwent necessary training before they were posted at the jetties. Besides ensuring that passenger load of vessels is maintained and no passenger gets onto the jetty before the scheduled time, the jalasathis have also been trained to initiate rescue work in case any untoward incident.

They have been commissioned a blue uniform so that they can be easily identified by commuters, who can approach them for any sort of help.

At night, the jalasathis ensure that the jetty areas remains properly illuminated so that commuters do not face problem in getting down from vessels. They also help elderly people as and when required. They also ensure that there is no rush to get onto the vessels, to prevent any accident.

Source: Millennium Post


ডিসেম্বর ১০, ২০১৮

নিত্যযাত্রীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করছে জলসাথীরা

নিত্যযাত্রীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করছে জলসাথীরা

কলকাতার বিভিন্ন ফেরিঘাটে জলসাথীদের উপস্থিত ফলে যাত্রীদের সুরক্ষা বেড়েছে। আগের তুলনায় এখন যাত্রীরা অনেকটাই নিশ্চিন্ত বোধ করছেন। এমনটাই দাবি সরকারি অফিসারদের।

হুগলী নদী পারাপারকারি যাত্রীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে জলসাথী মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল রাজ্য সরকার। কোনওরকম দুর্ঘটনা রুখতে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) বা নিয়মাবলী মেনে রাজ্য সরকার ফেরি ঘাটগুলিতে জেটি নির্মাণ করেছে। গুরুত্বপূর্ণ জেটিগুলির সস্কার করার পাশাপাশি অনেক নতুন জেটিও নির্মাণ করা হয়েছে। প্রতি জেটিতে প্রয়োজনীয় আলোর ব্যবস্থা করা হয়েছে; ওভারলোড এড়াতেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এসওপিগুলি ঠিকমত মানার হচ্ছে কিনা তা তদারকি করতে প্রতি জেটিতে জলসাথী নিযুক্ত করা হয়েছে। বিভিন্ন জেটিতে নিযুক্ত করার আগে এই জলসাথীদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। জলযান ওভারলোড না হতে দেওয়া, নির্দিষ্ট সময়ের আগে জেটিতে কোনও যাত্রীকে নামতে না দেওয়ার পাশাপাশি জলে কোনও দুর্ঘটনা ঘটলে, উদ্ধারকাজের প্রশিক্ষণও পেয়েছেন জলসাথীরা।

জলসাথীদের পরিধান নীল রঙের, যাতে যাত্রীরা খুব সহজেই তাদের চিহ্নিত করতে পারেন ও প্রয়োজনে সাহায্য চাইতে পারেন।

সূর্যাস্তের পর জলসাথীরা জেটিতে যথাযথ আলোর ব্যবস্থার ওপর নজর রাখেন যাতে কোনও যাত্রী জলযানে ওঠানামার সময় সমস্যার সম্মুখীন না হন। বয়স্ক মানুষদের যাতায়াতেও সাহায্য করেন তারা। জলযানে ওঠানামার সময় যাতে হুড়োহুড়ি না হয়, সেই দিকেও নজর রাখেন তারা।