Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


December 14, 2018

Bangla Govt taking initiatives to tackle arsenic contamination

Bangla Govt taking initiatives to tackle arsenic contamination

The State Government has firmly taken up the challenge of addressing the issue of arsenic contamination, said the State Water Investigation and Development Minister recently at a national seminar on the issue of surface water in rural Bangla.

Unfortunately, arsenic affects the groundwater in 83 blocks, most of them in the districts of North 24 Parganas and South 24 Parganas. This groundwater is pumped up through tube-wells for drinking and other purposes, and when consumed for a long time, it affects the bodies, especially the skin.

According to the minister, the government is extracting water from perennial rivers and purifying it for providing arsenic-free purified water to the people of the State. For example, he said, in the districts of Bankura and Purulia, the government has successfully extracted water from the DVC and purified it for supplying to the people.

However, he said, this is also time-consuming, and so the World Bank and the Asian Development Bank (ADB) will be providing financial help to the government to undertake scientific projects for arsenic prevention.

Stressing on the need for a massive campaign to control the spread of arsenic contamination, the minister urged the private sector, including the NGOs, to come forward for tackling the issue.

Source: Millennium Post


ডিসেম্বর ১৪, ২০১৮

আর্সেনিক মোকাবিলায় সরকার বদ্ধপরিকর

আর্সেনিক মোকাবিলায় সরকার বদ্ধপরিকর

আর্সেনিক সংক্রমণ মোকাবিলায় বদ্ধপরিকর সরকার। এই বিষয়ে রাজ্য সরকার অনেক পদক্ষেপ নিয়েছে। একটি আলোচনাসভায় রাজ্যের জলসম্পদ অনুসন্ধান ও উন্নয়ন মন্ত্রী এমনটাই জানান।

উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার ৮৩টি ব্লক আর্সেনিক অধ্যুষিত। ভূগর্ভস্থ জল টিউবওয়েলের মাধ্যমে বার করে পানীয় জল হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এই জল দীর্ঘদিন ব্যবহার করলে শরীরের, বিশেষত ত্বকের, ক্ষতি করে।

মন্ত্রী বলেন, সরকার নদীর জল পরিস্রুত করে জনসাধারণকে সরবরাহ করছে। উদাহরণস্বরূপ তিনি বলেন, বাঁকুড়া ও পুরুলিয়াতে সরকার ডিভিসির জল পরিস্রুত করে মানুষকে সরবরাহ করে।

মন্ত্রী বলেন, এই কাজ সময়সাপেক্ষ। দরকার অনেক বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা নিরীক্ষা। এর জন্য বিশ্বব্যাঙ্ক ও এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক আর্থিক সহায়তা করছে রাজ্যকে।

আর্সেনিক সংক্রমণ রুখতে ব্যাপক প্রচারাভিযান দরকার, মত মন্ত্রীর। সেই জন্য বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ও বেসরকারি সংগঠনকে এগিয়ে আসার আর্জি জানান মন্ত্রী।