Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


October 3, 2018

Lab for testing export goods to come up in Newtown

Lab for testing export goods to come up in Newtown

A laboratory to test export goods will be set up in Newtown. The state Cabinet has given the approval to allot 40 cottahs of land to Export Inspection Agency, a wing of the Ministry of Commerce and Industry, to set up the laboratory in New Town. The laboratory will come up at Action Area III.

The laboratory will test goods, particularly tea and seafood items, which are being exported. In order to export goods, various certificates are required and the consignments are often rejected as they fail to meet the international standards.

The Export Inspection Lab, which now functions from a rented premise, was established in 1963. Its purpose is to ensure development of export trading through quality control.

The lab conducts chemical testing on items like spices and condiments, pulses, fish and fishery products, fruit juices, fruits and vegetables, drinking water, carbonated water etc. which undergo tests like parathion methyl, aldrin, alpha-BHC, copper, acidity, moisture, total ash, water soluble ash, crude fibre, volatile oil and many more.

The lab also conducts biological testing on items like fish and fish products, milk and milk products, bakery products, swabs, water and ice from processing industries, beverages etc. which undergo tests like Shigella sp, Total Plate Count, Escherichia coli, Salmonella sp, Coliforms and many more. The lab is well-equipped with skilled professionals to carry out accurate testing services.


অক্টোবর ৩, ২০১৮

রপ্তানি সামগ্রীর পরীক্ষা কেন্দ্র হবে নিউটাউনে

রপ্তানি সামগ্রীর পরীক্ষা কেন্দ্র হবে নিউটাউনে

রপ্তানি সামগ্রীর পরীক্ষা কেন্দ্র তৈরী হবে নিউটাউনে। রাজ্য মন্ত্রীসভা এজন্য শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রকের Export Inspection Agency (রপ্তানি নিরীক্ষা সংস্থা)-কে ৪০ একর জমি প্রদান করেছে। এই পরীক্ষাগার হবে অ্যাকশন এরিয়া ২য়ে।

এই পরীক্ষা কেন্দ্রে বিভিন্ন রপ্তানি সামগ্রী – যেমন, চা, সিফুড – ইত্যাদি পরীক্ষা করা হবে। কোনও সামগ্রী রপ্তানি করতে গেলে, বিভিন শংসাপত্রের প্রয়োজন। অনেক সময় আন্তর্জাতিক মানের না হওয়ার কারণে সেগুলি রপ্তানি করা যায় না।

গুনমান নিয়ন্ত্রণ করে রপ্তানি বাণিজ্য বাড়ানোর লক্ষ্যে একটি পরীক্ষা কেন্দ্র তৈরী হয় ১৯৬৩ সালে। কিন্তু সেটির জন্য সরকারকে ভাড়া দিতে হয়।

ই পরীক্ষা কেন্দ্রে বিভিন্ন মসলা, ফোড়ন, ডাল, মাছ ও মাছজাত দ্রব্য, ফলের রস, ফল ও আনাজ, পানীয় জল, কার্বোনেটেড জল ইত্যাদির রাসায়নিক পরীক্ষা করা হয়। পাশাপাশি মাছ, দুধ ও দুগ্দ্ধজাত দ্রব্য, বেকারি পণ্য, সোয়াব, প্রক্রিয়াকরণ কেন্দ্রের জল ও বরফের জীবতত্ত্বিক পরীক্ষা করা হয়। এই পরীক্ষা কেন্দ্রগুলিতে বিভিন্ন পরীক্ষার জন্য দরকারী সমস্ত যন্ত্রপাতি ও দক্ষ পেশাদার আছে।