Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


June 10, 2018

7 years: Chronicles of Bengal’s progress

7 years: Chronicles of Bengal’s progress

In May 2011, the Hon’ble Chief Minister, Mamata Banerjee, established efficient governance in West Bengal, with the Government of Maa, Mati, Manush. On May 27, 2016, through a historic verdict, the government was sworn in for the second time in a row.

On the seventh anniversary of that historic day, the State Government came out with a book enlisting all the work done by various departments in the last seven years. The book was released by the Chief Minister during the administrative review meeting at Howrah on June 7, 2018.

In the last seven years, Bengal has witnessed phenomenal growth in development and prosperity. Nearly 90% of the State’s population has benefited from various public services. 90% of the State’s population is provided with food grains at a subsidised rate, under the ‘Khadya Sathi’ scheme. Apart from this, the Government has also taken initiatives such as ‘Sabujshree’, ‘Kanyashree’, ‘Sikshashree’, ‘Sabuj Sathi’, ‘Sishu Sathi’, ‘Yuvashree’, ‘Rupashree’, ‘Manabik’, and ‘Samabyathi’, to name just a few.

These schemes have made available a plethora of services to all citizens, including members of scheduled castes, tribes, minorities, and OBCs.

Click here to read the book.


জুন ১০, ২০১৮

গর্বের সাত বছর - উন্নয়নের খতিয়ান দিয়ে বই প্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীর

গর্বের সাত বছর - উন্নয়নের খতিয়ান দিয়ে বই প্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীর

২০১১ সালের মে মাসে মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলায় সুশাসনের প্রতিষ্ঠা করে মা-মাটি-মানুষের সরকার। জনগণের রায়ে পুনর্নির্বাচিত হয়ে ২০১৬ সালের ২৭ মে দ্বিতীয় বারের মত শপথ গ্রহণ করে বাংলায় ফিরে এসেছে এই সরকার।

সেই ঐতিহাসিক দিনের সপ্তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে একটি বই প্রকাশ করা হয়েছে সরকারের তরফে, যেখানে সবিস্তারে উল্লেখ রয়েছে গত সাত বছরের উন্নয়নের কর্মকান্ডের।

গত সাত বছরে বাংলা প্রত্যক্ষ করেছে উন্নয়ন এবং সমৃদ্ধির এক অনন্য নজির। রাজ্যের প্রায় ৯০ শতাংশ মানুষই গত ৭ বছর ধরে বিভিন্ন সরকারি পরিষেবার সুবিধা লাভ করছেন। খাদ্যসাথী প্রকল্পে রাজ্যের ৯০ শতাংশ মানুষ সুলভ মূল্যে খাদ্যশস্য পাচ্ছেন। এ ছাড়া, সবুজশ্ৰী থেকে শুরু করে কন্যাশ্রী, শিক্ষাশ্রী থেকে সবুজসাথী, শিশুসাথী থেকে যুবশ্রী থেকে রূপশ্রী, মানবিক থেকে সমব্যাথী, ইত্যাদি একগুচ্ছ প্রকল্পের মাধ্যমে জীবনের প্রতিটি পর্যায়ে তফসিলি জাতি, আদিবাসী, সংখ্যালঘু, ওবিসি সহ সাধারণ শ্রেণীর মানুষ পাচ্ছেন সরকারি সুবিধা। এই সরকারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলা আজ দেশের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছে।

শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, শিল্প, পরিবহন, সংস্কৃতি, ইত্যাদি ক্ষেত্রে এই সরকার সৃষ্টি করে চলেছে সার্বিক উন্নয়নের নতুন নতুন নজির। সব ধর্ম, সম্প্রদায়ের মানুষের মধ্যে সম্প্রীতিতে এই রাজ্য স্থাপন করেছে নতুন দৃষ্টান্ত।

বইটি পড়তে এখানে ক্লিক করুন।