Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


August 9, 2018

Mamata Banerjee lays the foundation stone for Jhargram University

Mamata Banerjee lays the foundation stone for Jhargram University

The United Nations has designated August 9 as International Day of the World’s Indigenous Peoples. The State Government is observing this day as ‘Adivasi Dibas’ in Bangla.

Chief Minister Mamata Banerjee led the State-level celebrations at Jhargram. She also laid the foundation stone for Jhargram University and launched 29 buses for the district.

In the last seven years, the Trinamool Congress Government has been working hard for the welfare and upliftment of people belonging to the backward classes, which includes the Adivasis.

 

Highlights of the Chief Minister’s speech

  • Today is the anniversary of Quit India Movement. Mahatma Gandhi had given the clarion call “Do or Die” for independence. Netaji had said, “Give me blood and I will give you freedom”. My respectful homage to all the freedom fighters who fought for the country.
  • We are observing Adivasi Dibas today across the State.
  • We have set up camps to distribute caste certificates. We have published books in Ol Chiki.
  • Jhargram is a new district, which was formed by our Govt. We have set up a new stadium in Jhargram.
  • We have set up a new multi super speciality hospital, mother and child hub in this district. We have built the Jangal Kanya bridge.
  • Foundation stone has been laid for a new university in Jhargram. The students of this district can study here only. We are setting up new Ol Chiki medium schools. We will appoint 200 teachers in Ol Chiki language.
  • Some people with vested interests are trying to incite violence between communities.
  • There was a time when Jangalmahal was stricken with violence. But peace has returned now. Educational and employment opportunities have opened up.
  • We have given Sikshashree scholarships to SC/ST students. The money is directly transferred to their bank accounts.
  • We are conducting WBCS exam in Ol Chiki now. Adivasi and SC students are receiving loans up to Rs 10 lakh for pursuing higher education in India and up to Rs 20 lakh for studying abroad.
  • Kanyashree scheme has been extended to university students. Students pursuing science will get Rs 2,500 and those pursuing humanities will get Rs 2,000.
  • We are giving Rs 25,000 under Ruposhree scheme for the wedding of girls from families with income less than Rs 1.2 lakh.
  • I would urge the administration to increase their people’s outreach. Every family should receive rice at Rs 2/kg. Or else, strict action will be taken.
  • We must ensure people get the services they are entitled to.
  • We have felicitated eminent members of the Adivasi community today. We are honoured.
  • We set up the separate Tribal Welfare Department after coming to power.
  • Do not pay heed to any propaganda. One political party is trying mislead people, because it is election season. They cannot be found in other times. But our Maa, Mati, Manush Government is with the people 365 days a year.
  • Some people who have won a few seats in Belpahari region are trying to incite violence with goons brought from Jharkhand. They want to bring back the days of bloodshed.
  • If you trust me, I urge you, do not trust anyone except me. I am always with you. I will continue to work for the people, as long as I am alive.
  • We have framed a new law so that no one can usurp land owned by Adivasis.
  • We do not discriminate based on religion or community. We do not want riots. Riots bring bloodshed and destruction. We want our brothers and sisters to live in peace and prosper.
  • We have not forgotten Netai, Nandigram, Nanoor or Singur. Jangalmahal is happy today. My happiness is in your progress.
  • Say no to communalism. Say no to canards and propaganda. Say no to conspiracies. Say no to discrimination. Religion is personal. Festival is for all.
  • We have set up schools named after Raghunath Murmu. We have set up Ekalavya schools. All students, except one, have passed board examinations with first division marks. We want them to become doctors, engineers, leaders.
  • We are organising community development programmes. Our Adivasi youths are participating in them.
  • If you think someone have erred, give them a chance to rectify. But do not misunderstand us. Only we work for the people.
  • Lynchings have become a new normal in the country. Dalits are being tortured. People are being killed in fake encounters in UP. These incidents do not occur in our State. We want everyone to live in peace and harmony.
  • We cannot control rains. They are a natural phenomenon. But we are ensuring that people get relief and rehabilitation after any natural disaster.
  • We pay Rs 48,000 crore every year for debt servicing. Yet, we are carrying on with our social welfare schemes. We have not learnt to bow our heads down.

 


অগাস্ট ৯, ২০১৮

ঝাড়গ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ঝাড়গ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে আজ রাজ্যজুড়ে পালিত হল ‘আদিবাসী দিবস’।

রাষ্ট্রসঙ্ঘ এই দিনটি ‘ইন্টারন্যাশানাল ডে অব ওয়ার্ল্ড ইন্ডিজেনাস পিপল’ হিসেবে পালন করে। আজকের দিনটিকে ‘আদিবাসী দিবস’ হিসেবে পালন করছে রাজ্য সরকার। আজ মুখ্যমন্ত্রী ঝাড়গ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন এবং সূচনা করেন ২৯টি নতুন বাসের।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গত সাত বছর ধরে রাজ্যের পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায়ের মানুষের উন্নয়নের স্বার্থে অগণিত পদক্ষেপ ও উদ্যোগ নিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের কিছু অংশ:

  • আজ ভারত ছাড়ো আন্দোলনের ৭৬তম পূর্তি। আজকের দিনে মহাত্মা গান্ধী বলেছিলেন, “করেঙ্গে ইয়া মরেঙ্গে, ইংরেজ ভারত ছাড়ো”। নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসু বলেছিলেন, “তোমরা আমাকে রক্ত দাও, আমি তোমাদের স্বাধীনতা দেব।” বীর শহীদদের আমার প্রণাম, সালাম জানাই।
  • আজ আদিবাসীদের গৌরব দিবসে আপনাদের সকলকে জয় জহর জানাচ্ছি। সারা বাংলায় আজ আদিবাসী দিবস পালন করছি আমরা।
  • আমরা অনেক ক্যাম্প তৈরী করছি, সেখান থেকে কাস্ট সার্টিফিকেট দেওয়া হবে।
  • আমরা অলচিকিতে বই ও অনেক স্কুল তৈরী করেছি।
  • ঝাড়গ্রাম জেলা নতুন জেলা, আমরা তৈরী করেছি। আমরা ঝাড়গ্রামে নতুন স্টেডিয়াম তৈরী করেছি।
  • ঝাড়গ্রামে মাদার চাইল্ড হাব আমরা তৈরী করেছি, মাল্টি সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতাল আমরা তৈরী করেছি। জঙ্গলকন্যা সেতু আমরা তৈরী করেছি।
  • ঝাড়গ্রাম আজ পেল নতুন বিশ্ববিদ্যালয়। জঙ্গলমহল, ঝাড়গ্রামের ছেলেমেয়েরা এখানেই পড়ার সুযোগ পাবে। আরও অলচিকি স্কুল আমরা তৈরী করে দেব। ২০০ নতুন শিক্ষক নেওয়া হবে এই স্কুলগুলির জন্য।
  • কিছু লোক আছে কখনও আদিবাসীর সঙ্গে মাহাতোর ঝগড়া লাগায়, কখনও মাহাতোর সঙ্গে আদিবাসীর ঝগড়া লাগায়। কখনও হিন্দুর সাথে মুসলমানের ঝগড়া লাগায়।
  • এই জঙ্গলমহলে একসময় কেউ বাড়ি থেকে বেরোতে পারত না। আজ সেখানে শান্তি ফিরে এসেছে। কত ছেলেমেয়ে ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার ডব্লুবিসিএস হচ্ছে, কত ছেলেমেয়ের চাকরি হয়েছে, খেলাধুলা করতে পারছে।
  • তপশিলি জাতি, উপজাতি ছেলেমেয়েরা শিক্ষাশ্রী স্কলারশিপ পাচ্ছে। তাদের অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা দিয়ে দেওয়া হয়।
  • অলচিকিতেও আমরা ডব্লুবিসিএস পরীক্ষা নিচ্ছি। আদিবাসী ও তপশিলি ছেলেমেয়েদের দেশে উচ্চ শিক্ষার জন্য ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত এবং বিদেশে পড়লে ২০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সরকার সফট লোন দেয়।
  • আগে শুধু স্কুলে ছিল, এখন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত কন্যাশ্রী আছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে কন্যাশ্রীর মেয়েরা আর্টস পড়লে ২০০০ টাকা ও সায়েন্স পড়লে ২৫০০ টাকা স্কলারশিপ পাবে।
  • যে কোনো গরীব পরিবারের মেয়ের বিয়েতে ২৫০০০ টাকা করে দেওয়া হচ্ছে রুপশ্রী প্রকল্পে।
  • আমি পুলিশ ও আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছি ২ টাকা কিলো চাল যেন মানুষ পায়। যে না দেবে, তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিন।মানুষ যেন সব সুযোগ ঠিকমতো পায়।
  • আদিবাসীদের জন্য আলাদা দপ্তর তৈরী করেছি আমরা।
  • একটা পার্টি এসে বলছে এসে বলছে ভোটটা আমায় দাও। টাকা দিয়ে একবার ভোট পাওয়া যায়। ভোট পেয়ে তো তুমি পিটটান দেবে, ৩৬৫ দিন তো তোমায় পাওয়া যাবে না। কিন্তু মা, মাটি, মানুষের সরকার সবসময় মানুষের পাশে আছে।
  • বেলপাহাড়ির কয়েকটা জায়গায় জিতে কিছু অঞ্চলে কেউ কেউ ঝাড়খণ্ড থেকে মাওবাদী নিয়ে আসছে। ওরা চাইছে ঝাড়গ্রাম আবার রক্তাক্ত হয়ে যাক।
  • আমার ওপর যদি বিশ্বাস থাকে, আমি আপনাদের বলব, আমাদের ছাড়া আর কাউকে বিশ্বাস করবেন না। আমি যতদিন আছি, আমি মানুষের বিরুদ্ধে কোনও কাজ কাউকে করতে দেব না। কারণ, মানুষই আমার সব। আপনারাই আমার সবচেয়ে বড় পরিবার।
  • আদিবাসীদের জমি যাতে কেউ না নিতে পারে, আমরা আইন তৈরী করেছি।
    আমি হিন্দু মুসলমানে, শিখ-খ্রিস্টানে, আদিবাসি-মাহাতোতে ভাগাভাগি করি না। আমি খুন-অশান্তি-দাঙ্গা চাই না। আমি চাই আমার সব আদিবাসী, সংখ্যালঘু, গরীব ভাইবোনেরা শান্তিতে থাকুক, একদিন পৃথিবী জয় করুক।
  • নেতাই, নন্দীগ্রাম, বেলপাহাড়ির কথা মনে আছে। আজ জঙ্গলমহল ভালো আছে। আপনারা ভালো থাকলে তবেই তো আমি ভালো থাকবো।
  • একতা মজবুত হোক। সাম্প্রদায়িক শক্তিকে কোনও জায়গা নয়, বিভেদকে কোনও জায়গা নয়, জাতিভেদকে কোনও জায়গা নয়, সঙ্কীর্ণতাকে কোনও জায়গা নয়, কুৎসাকে কোনও জায়গা নয়, ঘৃণাকে কোনও জায়গা নয়, অপপ্রচারকে কোনও জায়গা নয়, চক্রান্তকে কোনও জায়গা নয়, ষড়যন্ত্রকে কোনও জায়গা নয়। ধর্ম যার যার, উৎসব সবার।
  • আমরা রঘুনাথ মুর্মুর নামে স্কুল তৈরী করেছি। কত একলব্য স্কুল আমরা তৈরী করেছি। একলব্য স্কুল থেকে আমার সব ছেলেমেয়েরা – একজন ছাড়া – প্রথম বিভাগে পাস করেছে। আমি চাই আমার আদিবাসী ঘরের ভাইবোনেরা ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, বড় লীডার তৈরী হোক। সমাজ সংস্কারক হোক।
  • আমরা অনেক কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম করেছি। আদিবাসী ছেলেমেয়েরা সেগুলিতে অংশগ্রহণ করছে।
  • একটা লোকের কোনও ভুল হলে, আমাদের বলবেন, আমরা সংশোধন করে দেব। কিন্তু, ভুল বুঝে কখনও দূরে সরে থাকবেন না। আমরা মানুষের কাজ করি।
    সারা দেশে লিঞ্চিং-এর নাম করে কীভাবে দলিতদের ওপর অত্যাচার হচ্ছে। এনকাউন্টারের নাম করে কত সাধারণ মানুষকে উত্তরপ্রদেশে খুন করা হচ্ছে। আমাদের এখানে এসব হয়না। এখানে প্রত্যকের শান্তিতে সুন্দরভাবে বাঁচার অধিকার আছে।
  • প্রায় ৩০ লক্ষ কৃষক, যাদের জমি বৃষ্টিতে ডুবে গিয়েছিল, তাদের আমরা সাহায্য করেছি। প্রকৃতি আমাদের হাতে নেই। কিন্তু, এর ফলে কেউ ক্ষতিগ্রস্ত হলে আমরা সাহায্য করব।
  • সিপিএমের করা ৪৮০০০ কোটি টাকা দেনা শোধ করতে হয় আমাদের। তাও আমরা সব প্রকল্প চালিয়ে যাচ্ছি। আমরা মাথা নোট করি না।