Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


September 8, 2018

Literacy rate in Bangla higher than national average

Literacy rate in Bangla higher than national average

Today is the 52nd International Literacy Day. A padayatra will be organised from the Gandhi Statue on Mayo Road to commemorate the occasion. A cultural function will also be held at Rabindra Sadan.

The State Government is committed to achieving 100% literacy rate in Bangla. To that effect, schemes and programmes are being implemented in Murshidabad, Malda, North and South Dinajpur, Jalpaiguri, Cooch Behar, Birbhum, Jalpaiguri, Purulia and Bankura.

Although the Centre has stopped giving funds for national literacy programme, the State Government has been running various programmes with its own funds.

A regional office of Mass Education Extension Directorate was set up in Malda for better monitoring of the issues of the districts of Malda, Uttar Dinajpur, Dakshin Dinajpur and Murshidabad.

On International Literacy Day today, let us take a look at the achievements of the State’s Directorate of Mass Education Extension.

Initiatives for students with disabilities and inmates of social welfare homes:

E-learning of Indian Sign Language (ISL)-based grammar for normal and specially-abled students sanctioned

Upper age limit for inmates in social welfare homes modified to enable stay till passing of Higher Secondary examination or attaining of 18 years of age, whichever is earlier

For meeting needs of districts, intake capacity of social welfare homes increased to 7,587

New schemes for providing school bags and school shoes, and reference books to inmates of social welfare homes introduced

State-level sports meet among inmates of social welfare homes organised for financial year 2017-18

Special Schools and social welfare homes under Mass education Extension & Library Services Department plotted on GIS map along with relevant data

Greetings card for New Year 2017 printed by State Government containing sketches by students with disabilities and inmates of social welfare homes

Initiatives for sponsored special schools:

Management structure of special schools sponsored by State Government revamped

Hostel subsidy and contingency of students of sponsored special schools enhanced from Rs 1,000 to Rs 1,600 per student per month and from Rs 400 to Rs 700 per student per annum, respectively

School Education Department roped in to provide free textbooks, implementation of information and communications technology (ICT) and free mid-day meals

Webel Mediatronics Limited roped in to provide free Braille textbooks for visually-challenged students of sponsored special schools

State Health Department roped in to provide free health check-up for students and inmates of sponsored special schools and welfare homes

State Women & Child Development and Social Welfare Department roped in for extending benefits of Kanyashree Prakalpa for girl students of sponsored special schools

Saakshar Bharat Programme (SBP)

The scheme is now under implementation in nine districts – Cooch Behar, Jalpaiguri, Uttar Dinajpur, Dakshin Dinajpur, Malda, Murshidabad, Birbhum, Bankura and Purulia.

More than 49 lakh non-literates mobilised for undergoing basic literacy course

20 model Adult Education Centres under SBP set up


সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৮

সাক্ষরতায় এগিয়ে চলেছে বাংলা

সাক্ষরতায় এগিয়ে চলেছে বাংলা

আজ ৫২তম আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস। সেই উপলক্ষে আজ কলকাতায় গান্ধী মূর্তির পাদদেশ থেকে একটি পদযাত্রার আয়োজন করা হয়েছে। রাজ্যকে পূর্ণ সাক্ষর করে তোলার লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার। রবীন্দ্র সদনে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজনও করা হয়েছে।

মুর্শিদাবাদ, মালদা, দুই দিনাজপুর, বীরভূম, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, পুরুলিয়া ও বাঁকুড়ায় সাক্ষরতা কর্মসূচি বাস্তবায়িত করা হয়েছে। কেন্দ্র সাক্ষরতার খাতে টাকা দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে, রাজ্যের উদ্যোগেই কাজ করছে জনশিক্ষা প্রসার বিভাগ।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক রাজ্য সরকারের জনশিক্ষা প্রসার বিভাগের কিছু সাফল্য

প্রতিবন্ধী ছাত্রছাত্রী ও সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার হোমের আবাসিকদের জন্য উদ্যোগঃ

সাধারণ ও প্রতিবন্ধী ছাত্রদের জন্য ভারতীয় সাঙ্কেতিক ভাষার ব্যাকরণ এর ই-শিক্ষা প্রকল্প অনুমোদিত হয়েছে।

হোমে থাকার বয়সের ঊর্ধ্বসীমা পরিবর্তন করা হয়েছে, এখন ১৮ বছর বয়স বা উচ্চ মাধ্যমিক পাস করা পর্যন্ত হোমে থাকা যায়।

জেলাগুলির চাহিদা অনুসারে হোমের আসন সংখ্যা ৬৯৯৫ থেকে বাড়িয়ে ৭৫৮৭ করা হয়েছে।

সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার হোমের আবাসিকদের স্কুল ব্যাগ, জুতো, রেফারেন্স বই দেওয়া শুরু হয়েছে।

অনামি ও অনুমোদনহীন প্রতিষ্ঠানগুলির জন্য এক কালিন আথিক অনুদান প্রদানের প্রকল্প শুরু করা হয়েছে।

২০১৭-১৮ সালে সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার হোমের আবাসিকদের মধ্যে রাজ্যস্তরের ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় ।

স্পেশ্যাল স্কুল এবং সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার হোমগুলিকে প্রয়োজনীয় তথ্য সহকারে জিআইএস ম্যাপে প্লট (নথিভুক্ত) করা হয়েছে।

সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার হোমের আবাসিক ও প্রতিবন্ধী ছাত্রছাত্রীদের আঁকা গ্রিটিং কার্ড ২০১৭ সালের নববর্ষে রাজ্য সরকার ছাপিয়েছে।

সরকারি অনুদান প্রাপ্ত স্পেশ্যাল স্কুলের দৃষ্টিহীন পড়ুয়াদের জন্য বিনামুল্যে ব্রেইল পাঠ্য পুস্তক প্রদান করে ওয়েবেল মিডিয়াট্রনিক্স লিমিটেড।

সরকারি অনুদান প্রাপ্ত স্পেশ্যাল স্কুলগুলির জন্য উদ্যোগঃ

অনুদান-প্রাপ্ত স্পেশ্যাল স্কুলগুলির পরিচালন ব্যবস্থার সংস্কার করা হয়েছে।

অনুদান-প্রাপ্ত স্পেশ্যাল স্কুলগুলির হোস্টেল ভর্তুকি এবং কন্টিনজেন্সি ছাত্র পিছু প্রতি মাসে যথাক্রমে ১০০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৬০০ টাকা ও ৪০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭০০ টাকা করা হয়েছে।

স্কুল শিক্ষা দপ্তরের সহযোগিতায় অনুদান-প্রাপ্ত স্পেশ্যাল স্কুলগুলিতে বিনামূল্যে পাঠ্য পুস্তক ও মিড ডে মিল দেওয়া হচ্ছে। তথ্যপ্রযুক্তির প্রয়োগের ওপরেও জোর দেওয়া হচ্ছে।

অনুদান-প্রাপ্ত স্পেশ্যাল স্কুলগুলিতে ও সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার হোমের আবাসিকদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্যপরীক্ষা করা হয় স্বাস্থ্য দপ্তরের সহযোগিতায়।

অনুদান-প্রাপ্ত স্পেশ্যাল স্কুলগুলির ছাত্রীদের কন্যাশ্রী প্রকল্পের সুবিধা দেওয়া হয় নারী ও শিশু কল্যাণ ও সমাজ কল্যান দপ্তরের সহযোগিতায়।

সাক্ষর ভারত প্রোগ্রামঃ

এখন পর্যন্ত এই প্রকল্প নটি জেলায় বাস্তবায়িত করার কাজ চলছে। জেলাগুলি হল: কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিন দিনাজপুর, মালদা, মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, বাঁকুড়া ও পুরুলিয়া।

৪৯ লক্ষেরও বেশী নিরক্ষর মানুষকে মৌলিক সাক্ষরতা কোর্সের পাঠ দেওয়া হয়েছে।

সাক্ষর ভারত প্রোগ্রামের অধীনে ২০টি মডেল অ্যাডাল্ট এডুকেশন সেন্টার তৈরী করা হয়েছে।

মালদা, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিন দিনাজপুর, মুর্শিদাবাদ জেলায় রাজ্য জনশিক্ষা প্রসার বিভাগের বিভিন্ন কর্মসূচি আরও ভালোভাবে তদারকি করতে মালদায় এই বিভাগের একটি আঞ্চলিক দপ্তর খোলা হয়েছে।