Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


September 11, 2018

Honouring the legacy of Swami Vivekananda

Honouring the legacy of Swami Vivekananda

The great follower of the philosophy of Swami Vivekananda that Chief Minister Mamata Banerjee is, she has named schemes and places after the great son of Bangla.

Here is a list of the works of the Bangla Government in preserving the legacy of Swami Vivekananda:

Gave autonomy and special status to Ramakrishna and Sarada Mission educational institutions, which are associated with Swami Vivekananda’s ideology to impart education and foster character-building

Mamata Banerjee named the Centre for Human Excellence and Social Sciences being built by the Ramakrishna Mission as ‘Vivek Tirtha’

Acquiring and handing over premises adjoining Swamiji’s ancestral house to Ramakrishna Mission

Renovating ‘Mayer Bari’ in Baghbazar, Kolkata at a cost of Rs 30 crore

Acquiring Sister Nivedita’s house at Baghbazar and handed it over to Ramakrishna Sarada Mission, and giving it heritage status

Allocating Rs 2 crore for the renovation of ‘Roy Villa’ in Darjeeling, associated with Sister Nivedita, and handing it over to Ramakrishna Mission

Building a skywalk to connect the railway station of Dakshineswar to the famous temple there

Renaming Yuva Bharati Krirangan after Swami Vivekananda, as Vivekananda Yuba Bharati Krirangan

Naming the Self-Help and Self-Employment Department-run self-help scheme for the as Swami Vivekananda Swanirbhar Karmasansthan Prakalpa

Naming the scholarship for economically disadvantaged families as Swami Vivekananda Merit-cum-Means Scholarship

Organising Vivek Chetana Utsav from January 10 to 12, commemorating the birth anniversary of Swami Vivekananda across the State

 


সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮

স্বামী বিবেকানন্দকে যথাযথ সম্মান মা, মাটি, মানুষের সরকারের

স্বামী বিবেকানন্দকে যথাযথ সম্মান মা, মাটি, মানুষের সরকারের

স্বামী বিবেকানন্দের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে গত সাত বছরে একাধিক কর্মসূচি নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বহু সরকারি প্রকল্পের নামও রাখা হয়েছে স্বামী বিবেকানন্দের স্মৃতিতে।

স্বামী বিবেকানন্দের মতাদর্শকে যথাযথ সম্মান জানাতে রাজ্যের কিছু উদ্যোগ:

রামকৃষ্ণ এবং সারদা মিশন চালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিকে স্বশাসন এর ক্ষমতা এবং বিশেষ মর্যাদা (special status) দেওয়া হয়েছে।

রাজারহাটে নির্মীয়মান Centre for Human Excellence and Social Sciences এর নাম মুখ্যমন্ত্রী রেখেছেন ‘বিবেক তীর্থ’।

স্বামী বিবেকানন্দের পৈত্রিক বাড়ি ও তার সংলগ্ন অঞ্চল অধিগ্রহণ করে রামকৃষ্ণ মিশনের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

৩০ কোটি টাকা ব্যায়ে বাগবাজারে মায়ের বাড়ির সংস্কার করা হয়েছে।

বাগবাজারে ভগিনী নিবেদিতার বাড়ি অধিগ্রহণ করে হেরিটেজ তকমা দিয়ে রামকৃষ্ণ সারদা মিশনের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

দুই কোটি টাকা ব্যায়ে ভগিনী নিবেদিতার স্মৃতি বিজড়িত দার্জিলিঙের রায় ভিলার সংস্কার করে তুলে দেওয়া হয়েছে রামকৃষ্ণ মিশনের হাতে।

দক্ষিণেশ্বরের কালীবাড়ির সঙ্গে রেল স্টেশনের সংযোগকারী স্কাইওয়াক তৈরী করা হয়েছে।

যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনের নাম বদলে বিবেকানন্দ যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন রাখা হয়েছে।

স্বনির্ভর দপ্তরের স্বনির্ভর প্রকল্পের নাম স্বামী বিবেকানন্দ স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প রাখা হয়েছে।

অর্থনতিকভাবে পিছিয়ে পড়া পরিবারের ছাত্রছাত্রীদের যে বৃত্তি প্রদান করা হয়, সেটির নাম দেওয়া হয়েছে স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিন্স স্কলারশিপ।

স্বামী বিবেকানন্দের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাজ্যজুড়ে প্রতি বছর জানুয়ারি মাসের ১০ থেকে ১২ তারিখ বিবেক চেতনা উৎসব পালন করা হয়।