Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


February 7, 2019

BGBS 2019 – Country representatives express desire to collaborate with Bengal

BGBS 2019 – Country representatives express desire to collaborate with Bengal

Various country representatives expressed the desire to collaborate with Bengal during the second plenary session on the first day of Bengal Global Business Summit, 2019.

Here are the highlights:

Junaid Ahmad, Country Director, India, World Bank: West Bengal has always been known as the centre of a logistics, transport and connectivity hub in eastern India. West Bengal’s investment in local governance is second to none in India. Any State that invests in its girls is worth investing in, and Kanyashree has played a transformative role in the lives of many girls of the State.

We would like to have a World Bank-West Bengal State partnership, which will enable us to invest much more in the Chief Minister’s vision of a West Bengal that’s going to lead the region. By June this year, we will cross the billion dollar-mark in investment in West Bengal, and with a State partnership, that amount will continue to increase.

Kenji Hiramatsu, Ambassador of Japan to India: Japan is a strong supporter of West Bengal through its various Official Development Assistance (ODA) programmes. In terms of bilateral assistance, Japan is the largest donor country to West Bengal. West Bengal has a very important role to play in the BIMSTEC (Bay of Bengal Initiative for Multi-Sectoral Technical and Economic Cooperation) area.

I would like to congratulate the Chief Minister for her continued support to Japanese companies, including small and medium-sized companies, by providing them with incentives and better infrastructure. I hope the State of West Bengal continues to be good partner of Japanese companies by providing incentives and infrastructure.

Rod Hilton, Australian Deputy High Commissioner to India – Being here it is extremely easy to see Bengal does mean business. West Bengal is among the top 10 States in India that the Australian Government has identified for our topline priority for engagement. Bengal means business and Australia stands ready to help Bengal fulfill its vision and aspirations.

Takeaway: Australia is opening a consulate in Kolkata soon.

Jean Claude Kugener, Ambassador, Luxembourg – We are honoured to be the partner country for the 5th Bengal Global Business Summit. Our presence in West Bengal are two companies specialising in high-tech manufacturing. We are looking forward to our cooperation in the years to come.

Crispin Simon, Her Majesty’s Trade Commissioner for South Asia – We have a delegation of 40 businesses and public-sector entities, partnered with UKIBC. They represent British technology, primarily. Transport in London signed an MoU here already to develop the public transportation system. Other partnerships are in the field of basic science research.

Milan Hovorka, Ambassador of Czech Republic – We have a strong people to people connections – Batanagar bears the name of famous Czechoslovak industrialist Tomáš Baťa. I am accompanied today by a dozen Czech companies. Czech companies come every year to Kolkata to participate in global mining trade fairs and exhibitions.

Markku Keinänen, Under-Secretary of State, External Economic Relations, Finland – We are attending this summit with a delegation of 12 companies for sustainable solutions. These companies are ready to collaborate with you.

Jean-Marc FENET, Minister-Counsellor for Economic Affairs, French Embassy in India – More and more French companies are coming to Bengal. This was not the case even few years ago. Now, the business-friendly of the State has changed our perception. Next year, we will double the size of our delegation. We have 14-15 enterprises present in Kolkata already. You can count on French collaboration with Bengal in all sectors.

Nisha Biswal, President, US India Business Council – Importance of West Bengal as a connecting nodal point in the Indo-Pacific cannot be overstated. We are proud to have a strong delegation from North Carolina. We see incredible opportunities ahead.


ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১৯

বাণিজ্য সম্মেলনে বাংলার সাথে কাজ করার আগ্রহ নানা দেশের প্রতিনিধিদের

বাণিজ্য সম্মেলনে বাংলার সাথে কাজ করার আগ্রহ নানা দেশের প্রতিনিধিদের

বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনের প্রথম দিনে বাংলার সাথে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করলেন নানা দেশের প্রতিনিধিরা। দিনের দ্বিতীয় প্লেনারি সেশনে তারা তুলে ধরেন বাংলার সাথে কাজ করার বিভিন্ন সুযোগ।

দেখে নিন এক ঝলকে:

জুনাইদ আহমেদ, বিশ্ব ব্যাঙ্কের কান্ট্রি ডিরেক্টর, ভারত – পূর্ব ভারতে লজিস্টিক কেন্দ্র, যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং কানেক্টিভিটি হাব হিসেবে পশ্চিমবঙ্গ বহুকাল খ্যাত। এই খ্যাতিকে উন্নয়নের জন্য কাজে লাগাতে হবে। এই উন্নয়নের ফলে উপকৃত হবে ৩০ কোটি মানুষ।

এ রাজ্যের মত লোকাল গভর্নেন্সে বিনিয়োগ এদেশে আর কোনও রাজ্য করেনি। এ রাজ্যের পঞ্চায়েত ব্যাবস্থার শরীক আমরা। যে রাজ্য তার কন্যা সন্তানদের জন্য বিনিয়োগ করে, সে রাজ্য বিনিয়োগের আদর্শ স্থান। এবং এ রাজ্যের কন্যাশ্রী মেয়েদের অবস্থা আমুল পরিবর্তন করেছে।

আমরা বিশ্ব ব্যাঙ্ক-পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সহযোগিতা শুরু করতে চাই। এর ফলে মুখ্যমন্ত্রীর লক্ষ্য পূরণ আরও সহজ হবে। এই বছর জুন মাসের মধ্যে আমরা বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের গণ্ডী পার করব এবং এই পরিমাণ বেড়ে চলবে।

রড হিল্টন, ভারতে নিয়োজিত অস্ট্রেলিয়ার ডেপুটি হাই কমিশনার- এখানে এসে উপলব্ধি করছি ‘বেঙ্গল মিন্স বিজনেস’ যথার্থ। দেশের যে ১০টি রাজ্যের সাথে অস্ট্রেলিয়া সরকার কাজ করতে চায় তার মধ্যে একটি হল বাংলা। বাংলার সকল লক্ষ্য পূরণে অস্ট্রেলিয়া সরকার সহায়তা করবে রাজ্যকে।

প্রাপ্তিঃ অস্ট্রেলিয়া খুব শীঘ্র কলকাতায় একটি কন্স্যুলেট খুলবে।

জঁ ক্লদ কুজেনার, লুক্সেম্বার্গের রাষ্ট্রদূত- পঞ্চম বিশ্ব বঙ্গ বানিজ্য সম্মেলনের একটি পার্টনার দেশ হতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমাদের দুটি সংস্থা কলকাতায় আছে যারা নতুন হাই টেক সল্যুশন এর সাথে যুক্ত আছে। আগামী দিনে আমরা যোগদান বাড়াব।

ক্রিস্পিন সিমন, হার ম্যাজেস্টিজ ট্রেড কমিশনার ফর সাউথ এশিয়া – আমরা সরকারি বেসরকারি সংস্থা এবং ইউকেআইবিসি মিলিয়ে ৪০ সদস্যের বাণিজ্যিক প্রতিনিধি দল। এখানে আগতরা প্রাথমিকভাবে ব্রিটিশ প্রযুক্তির সাথে যুক্ত। লন্ডন ট্রান্সপোর্ট ইতিমধ্যেই মৌ স্বাক্ষর করেছে যার ফলে এখানকার পাবলিক ট্রান্সপোর্ট ব্যবস্থা উন্নত হচ্ছে। আমরা বৈজ্ঞানিক গবেষণার ক্ষেত্রেও কাজ করতে চাই।

মিলান হোভোরকা, চেক রিপাবলিকের রাষ্ট্রদূত- আমাদের দুই দেশের মানুষের মধ্যে এক নিবিড় সম্পর্ক আছে। আমি ডজনের বেশী চেক কোম্পানির প্রতিনিধিদের সঙ্গে এখানে এসেছি। চেক ব্যাবসায়ীরা প্রতি বছর কলকাতায় আসেন খনিজ ব্যাবসার মেলা ও প্রদর্শনীতে।

মারকু কিনানেম- আন্ডার সেক্রেটারি অফ স্টেট, এক্সটারনাল ইকোনমিক রিলেশনস – আমরা এই সম্মেলনে অংশ নিয়েছি ১২ জনের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সাস্টেনেবেল সলিউশনের জন্য। এই কোম্পানিগুলি এখানে একসঙ্গে কাজ করতে চায়।

জঁ মার্ক ফেনে, মিনিস্টার কাউন্সেলর ফর ইকোনমিক অ্যাফেয়ার্স, ভারতের ফরাসি দূতাবাস- আরও বেশী সংখ্যক ফরাসি সংস্থা বাংলায় আসছে। কয়েক বছর আগেও এটি সম্ভব ছিল না। বাণিজ্য বান্ধব পরিবেশের জন্যই এটা সম্ভব হয়েছে। আগামী বছর এর দ্বিগুণ বড় প্রতিনিধি দল আসবে। বর্তমানে কলকাতায় ১৪-১৫টি ফরাসি সংস্থা আছে।

নিশা বিসওয়াল, সভাপতি, ইউএস ইন্ডিয়া বিজনেস কাউন্সিল- ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে নোডাল কানেক্টর হিসেবে বাংলার গুরুত্ব অপরিসীম। উত্তর ক্যারোলিনা থেকে একটি বড় প্রতিনিধিদল এসেছে। আগামীদিনে একসাথে কাজ করার অনেক সুযোগ আসবে।