Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


February 12, 2019

Control room set up for Krishak Bandhu Scheme

Control room set up for Krishak Bandhu Scheme

The State Agriculture Department has set up a control room to help people with the Krishak Bandhu Scheme. Any query regarding the scheme would be answered from the control room.

The facility was started on January 27 at the office of the Agriculture Directorate in Jessop Building in Kolkata. The control room is open all days of the week, even on public holidays, from 10 AM to 5 PM.

The control room is being manned by one or two officers of the rank of assistant director and two workers of the Agriculture Department.

The control room can also be accessed through the number, (033) 22635795, which is toll-free.

The Krishak Bandhu Scheme, which has two parts to it, was announced by Chief Minister Mamata Banerjee on December 31, and was officially notified by the State Government on January 17 through a gazette notification.

Source: Bartaman

File Image

 


ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯

কৃষকবন্ধু প্রকল্প নিয়ে চালু হল কন্ট্রোল রুম

কৃষকবন্ধু প্রকল্প নিয়ে চালু হল কন্ট্রোল রুম

কৃষকবন্ধু প্রকল্প নিয়ে বিশেষ কন্ট্রোল রুম চালু করল কৃষি দপ্তর। এই প্রকল্পটি সম্পর্কে কৃষকদের প্রশ্নের উত্তর দিতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সপ্তাহে সাত দিনই সকাল ১০টা থেকে বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত এই কন্ট্রোল রুম খোলা থাকবে।

জেসপ বিল্ডিংয়ে কৃষি দপ্তরের ডাইরেক্টরেট অফিসে আগামী ২৭ জানুয়ারি থেকে এটি চালু হয়। শনি, রবি সহ অন্যান্য ছুটির দিনেও কন্ট্রোল রুমে কৃষি দপ্তরের আধিকারিক ও কর্মীদের পালা করে ডিউটি দেওয়া হচ্ছে। কোন আধিকারিক ও কর্মী কন্ট্রোল রুমে কবে ডিউটিতে থাকবেন, তার তালিকা তৈরী করা হয়েছে। অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর পদের এক বা দু’জন করে আধিকারিক প্রতিদিন কন্ট্রোল রুমে থাকবেন। তাঁদের সঙ্গে থাকবেন এক বা দু’জন কর্মী।

ফোনেও কৃষকদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে। কন্ট্রোল রুমের জন্য প্রাথমিকভাবে ০৩৩-২২৬২-৫৭৯৫ নম্বরটি নির্দিষ্ট করা হয়েছে।

কৃষকবন্ধু প্রকল্পটি সম্প্রতি ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রকল্পটির বিজ্ঞপ্তি গত ১৭ জানুয়ারি জারি করেছে কৃষি দপ্তর। প্রকল্পে দুটি আর্থিক সুবিধা দেওয়া হয়েছে। চাষ করার জন্য এক হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত (জমির পরিমাণের ভিত্তিতে) চাষি ও নথিভুক্ত ভাগচাষিদের বছরে দু’দফায় দেওয়া হবে।

এছাড়া কোনও চাষির মৃত্যু হলে তাঁর পরিবারকে দুই লক্ষ টাকা দেওয়া হবে। চাষ করার জন্য টাকা পাওয়ার আবেদনের ফর্ম তৈরী করেছে কৃষি দপ্তর।

সৌজন্যেঃ বর্তমান

ফাইল চিত্র