Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


February 3, 2019

I will sit in dharna to save the Constitution: Mamata Banerjee

I will sit in dharna to save the Constitution: Mamata Banerjee

Press statement by Mamata Banerjee at 8 PM on February 3, 2019:

I am anguished. The manner in which Modi and Shah are trying to take control of Bengal is unprecedented.

Just because I organised the United India Rally, I am being targeted.

You have seen the speech of PM. The language he used is not befitting of a Prime Minister. He had threatened yesterday only that the CBI will be used.

‘2019 – BJP finish’. Their expiry date has arrived. They have to win the mandate in an election, not by force.

It was our government which constituted the SIT that arrested the chit fund owner. The action against chit funds began during our regime.

Every time there is an election, they start raking up the issue of chit funds.

Modi is writing the script and Mr Doval is implementing it through the CBI.

The Kolkata Police Commissioner is among the best in the world. Let them prove their allegations against Rajeev Kumar.

How can the CBI come to the residence of the Kolkata CP without a warrant? This is a constitutional breakdown. They are running a parallel administration.

I appeal to all Opposition parties to work unitedly to oust Modi from power. Modi hatao, desh bachao.

Will they impose Article 356 next? The people will give a befitting reply.

The offices of Governors have become branch offices of the BJP.

The situation in the country is like a super-emergency. I have decided to sit on a dharna to save the Constitution, to save democracy, to save the federal structure.


ফেব্রুয়ারি ৩, ২০১৯

গণতন্ত্র বাঁচাতে ধর্নায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

গণতন্ত্র বাঁচাতে ধর্নায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

৩রা ফেব্রুয়ারী রাত ৮টায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাংবাদিক সম্মেলন:

এই পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। মোদী এবং অমিত শাহ বাংলা দখল করতে চাইছে, তা অভূতপূর্ব। আমি

যেহেতু আমি ইউনাইটেড ইন্ডিয়া র‍্যালির আয়োজন করেছি, তাই আমাকে টার্গেট করা হচ্ছে

আপনারা প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ শুনেছেন। তিনি তাঁর ভাষণে যে ভাষা ব্যবহার করেছেন, তা প্রধানমন্ত্রীর থেকে কাম্য নয়। তিনি কালকেই সিবিআইকে ব্যবহার করার ভয় দেখিয়েছিলেন

২০১৯- বিজেপি ফিনিশ। ওদের এক্সপায়ারি ডেট এসে গেছে। নির্বাচনে জিততে ওদের জনসমর্থন লাগবে, গায়ের জোরে জিততে পারবে না

আমাদের সরকার সিট গঠন করে চিট ফান্ডের মালিককে গ্রেপ্তার করে। চিট ফান্ডের বিরুদ্ধে আমাদের সরকারই ব্যাবস্থা নেওয়া শুরু করে

সব সময় দেখা যায়, নির্বাচন এলেই চিট ফান্ড ইস্যু উঠে আসে

মোদী স্ক্রিপ্ট লিখছে এবং দোভাল সেই স্ক্রিপ্টটি সিবিআইয়ের মাধ্যমে বাস্তবায়িত করছে

কলকাতা পুলিশ কমিশনার বিশ্ব সেরা অফিসারদের অন্যতম। ওনার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ আগে সিবিআই প্রমাণ করুক

কোন ওয়ারেন্ট ছাড়াই কি করে ওরা কলকাতা সিপির বাসভবনে আসতে পারে? সংবিধানকেও তোয়াক্কা করে না ওরা। সমান্তরাল প্রশাসন চালাচ্ছে

মোদীকে ক্ষমতাচ্যুত করতে আমি সকল বিরোধী দলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আবেদন জানাচ্ছি। মোদী হঠাও, দেশ বাঁচাও

ওরা কি আগামীদিনে ৩৬৫ ধারা লাগু করবে? মানুষ এর উপযুক্ত জবাব দেবে

রাজ্যপালের অফিস এখন বিজেপির দলের শাখায় পরিণত হয়েছে

দেশে এখন সুপার ইমার্জেন্সি চলছে। সংবিধানকে রক্ষার স্বার্থে এবং গণতন্ত্র ও যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোকে রক্ষা করার জন্য আমি ধর্নায় বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছি