Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


February 3, 2019

Alipore Zoo selling sal plates to wean visitors away from thermocol

Alipore Zoo selling sal plates to wean visitors away from thermocol

In an effort at environment-friendly measures, Kolkata’s Alipore Zoo has taken to selling plates made of sal leaves to visitors who want to picnic inside.

The plates are being sold from three stalls inside the zoo. The stalls sell the plates at Re 1 a piece.

The zoo management is aiming at gradually getting people out of the habit of taking thermocol plates, which are non-biodegradable, inside the zoo premises.

The end points for most thermocol products are landfills or the sea. Thermocol takes hundreds of years to decompose. When burned, it releases hazardous chemicals and toxic gases.

This green initiative also serves a social cause. The sal plates are being brought from a forest protection committee at Chandrakona in Paschim Medinipur district, where collecting firewood and sal leaves is the primary occupation of the tribal population. Thus the zoo authorities are enabling for a section of villagers there an additional source of income.

Each plate is made by stitching two leaves together. Women are the main earning members of several households.


ফেব্রুয়ারি ৩, ২০১৯

চিড়িয়াখানায় মিলছে শাল পাতার খাবার প্লেট

চিড়িয়াখানায় মিলছে শাল পাতার খাবার প্লেট

পরিবেশ বাঁচাতে প্লাস্টিকের পাশাপাশি এবার থার্মোকলকেও বিদায় জানাতে তিনটি শাল পাতার খাবার প্লেটের বিপণন কেন্দ্র খোলা হল আলিপুর চিড়িয়াখানায়।

এই উদ্যোগের সামাজিক গুরুত্বও আছে। এই শাল পাতাগুলি পশ্চিম মেদিনীপুরের বন থেকে আসছে যার ফলে ওই জেলার মানুষদের অতিরিক্ত আয়ও হচ্ছে।

নতুন বছরের প্রথম দিন থেকে এই শাল পাতার খাবার প্লেটের বিক্রয় কেন্দ্রগুলি খোলা হয়েছে চিড়িয়াখানায়। এ বিষয়ে প্রচুর ব্যানার ও পোস্টারও লাগানো হয়েছে। অনুরোধ করা হচ্ছে চিড়িয়াখানায় আগতদের থার্মোকলের খাবার প্লেট বর্জন করতে। গেটের কাছে ব্যাগও চেক করা হচ্ছে।

থার্মোকল একদমই পরিবেশ-বান্ধব নয়। মাটিতে মিশে যেতে কয়েকশো বছর সময় লাগে। থার্মোকল পোড়ালেও বিষাক্ত গ্যাস উৎপন্ন হয়।

শাল পাতার খাবার প্লেটের দাম করা হয়েছে ১ টাকা। এখনও পর্যন্ত ৫০০০০ প্লেট বিক্রী হয়েছে।

এই শাল পাতার প্লেটগুলি পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোনার একটি বন রক্ষা কমিটির থেকে নেওয়া হচ্ছে। ঐ অঞ্চলের আদিবাসী মহিলাদের মুখ্য জীবিকা জ্বালানী কাঠ ও শাল পাতা সংগ্রহ করা। প্রতিটি প্লেট তৈরী করা হয় দুটি শাল পাতা জুড়ে।