Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


January 11, 2019

Bangla’s Republic Day tableau to highlight Mahatma Gandhi’s ties with the State

Bangla’s Republic Day tableau to highlight Mahatma Gandhi’s ties with the State

This year, at the Republic Day parade on January 26 in New Delhi, the theme of the tableau to be sent by the Bangla Government would be ‘Gandhi Ji in Santiniketan and Beliaghata’. The whole concept has been conceived by Chief Minister Mamata Banerjee.

Responding to the invitation of Rabindranath Tagore, Mahatma Gandhi had come to Santiniketan in 1915, and stayed at the house named Shyamali. On August 13, 1947 in an effort to quell communal riots in Kolkata, Gandhi ji had started a 72-hour fast. He stayed at Hyderi Manzil while undertaking the fast. On the day of independence, August 15, Gandhi Ji was on fast in Kolkata.

The tableau will have a fibreglass model of Shyamali and various other models. Ten artistes would enact the characters of Mahatma Gandhi and others on the tableau as it would roil along on Janpath.

It may be mentioned that the State’s tableaus have had a successful run during the rule of the Trinamool Congress. Bangla again started sending tableaus for the Republic Day parades from 2012, after a gap of 13 years when the Left Front Government had decided not to send them.

In 2012, the theme was ‘Basantotsav’, as held in Santiniketan; in 2013, it was the 150th birth anniversary of Swami Vivekananda. In 2014, it was chhau dance of Purulia, in 2016, it was the baul artistes of Bangla, and 2017, it was ‘Sharodotsav’. Both in 2014 and 2016, the tableaus won first prize.

Controversially, in 2015, the Centre did not allow the State’s internationally-feted Kanyashree Scheme to be displayed as a tableau. But credit must be given to Mamata Banerjee that she has not backed off, and has continued sending prize-winning concepts for the marquee show on Republic Day.

Source: Bartaman


জানুয়ারী ১১, ২০১৯

২৬শে জানুয়ারি দিল্লিতে রাজ্যের ট্যাবলোর বিষয় গান্ধীজির অনশন

২৬শে জানুয়ারি দিল্লিতে রাজ্যের ট্যাবলোর বিষয় গান্ধীজির অনশন

২৬শে জানুয়ারি সাধারণতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে এবছর বাংলার ট্যাবলোর থিম হল, শান্তিনিকেতনে এবং বেলেঘাটায় গান্ধীজি। কী ধরনের ট্যাবলো হবে, তার মডেলই বা কী হবে – সব পরিকল্পনাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

১৯৯৯ সালে বামফ্রন্ট সরকার ২৬শে জানুয়ারির কুচকাওয়াজে আর অংশগ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। চাকা ঘোরে ২০১১ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় আসার পর। দীর্ঘ ১২ বছর পর ২০১২ সালে ফের ট্যাবলো পাঠায় পশ্চিমবঙ্গ। সেবারের থিম ছিল শান্তিনিকেতনের বসন্তোৎসব। পরের বছর ২০১৩ সালে স্বামী বিবেকানন্দের দেড়শো বছরের উপর ভিত্তি করে ট্যাবলো করা হয়। ২০১৪ সালে ট্যাবলোর থিম ছিল বাংলার ছৌ নৃত্য, যা প্রথম স্থান অধিকার করে। ২০১৬ সালে ট্যাবলোর থিম ছিল বাংলার বাউল। সেবারও প্রথম হিসেবে পুরস্কার পায় পশ্চিমবঙ্গ। ২০১৭ সালের ট্যাবলোতে থিম ছিল শারোদৎসবে ঢাকের বাদ্যি।

২০১৫ সালে কন্যাশ্রী প্রকল্পকে থিম হিসেবে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে পাঠানো হয়। কিন্তু তারা অনুমোদন না করায় সেই বছর ট্যাবলো পাঠাতে পারেনি রাজ্য। ২০১৮ তে ছিল একতাই সম্প্রীতি। তারও অনুমোদন দেয়নি কেন্দ্র।

১৯১৫ সালের মার্চ মাসে শান্তিনিকেতনে গান্ধীজির সঙ্গে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের সাক্ষাৎ তুলে ধরার পরিকল্পনা করা হয় ট্যাবলোতে। ওই দুই প্রবাদপ্রতিম ব্যক্তির সাক্ষাতের মুহূর্ত ফাইবারের মডেলে তৈরী করা হবে। ৪৮ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১৪ ফুট চওড়া ট্রেলারের উপরে সাজানো ট্যাবলোর অগ্রভাগে ওই ফাইবারের মডেল থাকবে। মডেল দুটির পিছনে রবিঠাকুরের শান্তিনিকেতনের বাড়ি শ্যামলী’র আদলে তৈরী হবে। পরের অংশে থাকবে জাতীয় পতাকা।

ট্রেলারের পিছনের দিকে তৈরী হবে বেলেঘাটার তৎকালীন হায়দরি মঞ্জিল, যা বর্তমানে গান্ধীভবন। যেখানে দাঙ্গার বিরুদ্ধে ১৯৪৭ সালের ১৩ আগস্ট থেকে ৭৩ ঘণ্টার অনশন করেছিলেন গান্ধীজি। কয়েকজন দাঙ্গাকারী তাঁর কাছে অস্ত্র সমপর্ণ করে। দাঙ্গাকারীরা দাঙ্গা বন্ধের প্রতিশ্রুতি দিলে ফলের রস খেয়ে অনশন ভঙ্গ করেছিলেন গান্ধীজি। পুরো বিষয়টি জীবন্ত মডেলের মাধ্যমে তুলে ধরা হবে ট্যাবলোতে। উল্লেখ্য, ১৫ আগস্ট ভারতের স্বাধীনতা লাভের দিন তিনি ওই হায়দারি মঞ্জিলেই ছিলেন।

১০ জন শিল্পী গান্ধীজি সহ অন্য চরিত্র তুলে ধরতে ট্যাবলোতে অংশ নেবেন।

সৌজন্যেঃ বর্তমান