Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


January 2, 2019

Bangla Govt’s efforts resulting in higher earnings from muslin sales

Bangla Govt’s efforts resulting in higher earnings from muslin sales

The Bangla Government’s efforts to popularise muslin through the Project Muslin is bearing fruit. Weavers are earning good amounts and the craft, once famed in Europe too, has also been successfully revived.

Twenty-one general production centres have been opened in nine districts. Additionally 63 muslin 63 clusters have been set up in 14 districts – Bankura, Birbhum, Howrah, Malda, North 24 Parganas, South 24 Parganas, Nadia, Purba Bardhaman, Paschim Bardhaman, Jhargram, Purulia, Kalimpong, Purba Medinipur and Paschim Medinipur.

As a result of these, both the number of muslin producers and the earnings have increased. Under the 63 clusters, 39,583 craftsmen are working successfully.

The West Bengal Khadi and Village Industries Board (under the State Micro, Small & Medium Enterprises and Textiles Department), under which the muslin clusters and production centres operate, has opened three stores inside three big malls in Kolkata – South City, Quest and Star.

A Club Muslin outlet has been opened at the State Government-owned Dakshinapan Shopping Complex in Dhakuria in Kolkata. These outlets at major shopping centres are also helping in achieving higher sales.

Source: Sangbad Pratidin


জানুয়ারী ২, ২০১৯

কর্মসংস্থানের পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে মসলিন শিল্পে বাড়ছে আয়

কর্মসংস্থানের পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে মসলিন শিল্পে বাড়ছে আয়

রাজ্য সরকারের প্রকল্প মসলিন-এর মাধ্যমে ৯টি জেলায় মোট ২১টি সাধারণ উৎপাদন কেন্দ্র তৈরী করা হয়েছে৷ এগুলি তৈরীর ফলে মসলিন কারিগরদের সংখ্যা ও আয় দুইই ব্যাপকভাবে বেড়েছে৷

বাঁকুড়া, বীরভূম, বর্ধমান, হাওড়া, মালদহ, নদিয়া, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, ঝাড়গ্রাম, দুই মেদিনীপুর, পুরুলিয়া ও কালিম্পং জেলায় মোট ৬৩টি ক্লাস্টার হয়েছে৷ এর অধীনে মোট ৩৯ হাজার ৫৮৩ জন শিল্পী সাফল্যের সঙ্গে কাজ করছেন ৷

রাজ্যের পুনরুজ্জীবিত প্যাকেজের মাধ্যমে মসলিন খাদিকে পুনরুজ্জীবিত করা সম্ভব হচ্ছে ৷ বিপণন বাড়ানোর জন্য সাউথ সিটি, কোয়েস্ট ও স্টার মলে তিনটি বিপণন কেন্দ্র খোলা হয়েছে ৷ ঢাকুরিয়ার দক্ষিণাপনে মসলিন পণ্য বিক্রীর জন্য উদ্বোধন করা হয়েছে ক্লাব মসলিন’-এরও ৷ এভাবেই বিক্রি ও গুরুত্ব বাড়ছে৷

উল্লেখ্য, খাদিমেলার জনপ্রিয়তাও বেড়েছে৷ আগামী ২ জানুয়ারি পর্যন্ত এই মেলা চলবে৷ ছুটির দিনগুলিতে হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান৷