Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


July 28, 2018

Bengal Govt to send SMS to farmers to inform about buying of crops

Bengal Govt to send SMS to farmers to inform about buying of crops

From August, the State Government has decided to communicate all details regarding its buying of paddy and others crops from farmers through SMS. This would make things much easier for farmers.

Details to be communicated through SMS include from when the Government would start buying crops, at what price and at which place. For buying crops, camps are held in all concerned blocks, overseen by the block’s Agriculture Department official.

This SMS project is a joint venture of the Agriculture and Food & Supplies Departments. Last year, during the camps, the Agriculture Department had collected the mobile phone numbers from farmers. A total of 17 lakh numbers have been collected. Now that database is being put to use.

Last year, the Government had bought 32 lakh metric tonnes (MT) of paddy from farmers. This year, the target is 40 lakh MT.

Source: Sangbad Pratidin


জুলাই ২৮, ২০১৮

ধান ও ফসল কিনতে কৃষকদের হোয়াটসঅ্যাপ করবে কৃষি দপ্তর

ধান ও ফসল কিনতে কৃষকদের হোয়াটসঅ্যাপ করবে কৃষি দপ্তর

ক্যাম্প ছিল, ছিল কিষাণ মান্ডিও। চাষিদের আরও সুবিধা করে দিতে এবার থেকে এসএমএসের মাধ্যমে ধান ও কয়েকটি ফসল কিনবে রাজ্য। যৌথভাবে এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কৃষি ও খাদ্য দপ্তর। প্রসঙ্গত, দেশের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গই প্রথম এমন পদ্ধতিতে ধান ও ফসল কেনার উদ্যোগ নিল।

সব ঠিক থাকলে, আগস্ট মাস থেকে ফসল কেনার কাজ শুরু হবে পরীক্ষামূলকভাবে। ধান কেনার কাজ শুরু হবে নভেম্বর থেকে।

গতবছর রাজ্যের সব ব্লকে গড়ে ৪টি করে ক্যাম্প করে সরাসরি চাষিদের থেকে ধান কিনেছিল খাদ্য দপ্তর। মন্ত্রী বলেন, সেই সময় ব্লক কৃষি আধিকারিকরা চাষিদের থেকে ধান কেনার পাশাপাশি তাদের ফোন নম্বরও সংগ্রহ করেন। সেই তথ্যই এবার কাজে লাগানো হবে।

অন্তত ১৭ লক্ষ চাষির থেকে তথ্য সংগ্রহ করে তথ্যভাণ্ডার তৈরী হয়েছে। কবে থেকে ধান বা ফসল কেনার কাজ শুরু হবে? কোথায় ক্যাম্প করা হবে? কত দামেই বা বিক্রী করা হবে? তার সমস্ত তথ্য জানিয়ে সংশ্লিষ্ট চাশিকে এসএমএস করা হবে। এর পাশাপাশি যেসব চাষিদের কিষাণ ক্রেডিট কার্ড রয়েছে, তারাও যাতে এই কর্মসূচীর সুফল পান তারজন্য বিশেষ পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

গত বছর ৩২ লক্ষ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহ করেছিল রাজ্য, এবার অন্তত ৪০লক্ষ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ শুরু করছে খাদ্য দপ্তর।

এসএমএস বা হোয়াটসঅ্যাপের পাশাপাশি রেশনে খাদ্যসামগ্রীর সঠিক বিতরণের জন্য সমস্ত তথ্য জানতে ১২টি জেলায় প্রায় ছশো রেশন দোকানে ই-পস (ইলেকট্রনিক পয়েন্ট অফ সেলস) যন্ত্র বসানোর উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য খাদ্য দপ্তর। এজন্য খরচ পড়বে ৯২কোটি টাকা। এই যন্ত্রের মাধ্যমে একজন উপভোক্তা মাসে বা সপ্তাহে কত পরিমাণ চাল, গম-সহ অন্যান্য পণ্য পাবেন তার সমস্ত তথ্য জানা যাবে।