Didi Direct

May 27, 2021

১৫ জুন পর্যন্ত বাড়ল কার্যত লকডাউনের মেয়াদ, নবান্নে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

১৫ জুন পর্যন্ত বাড়ল কার্যত লকডাউনের মেয়াদ, নবান্নে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

আজ ডিসাস্টার ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সাথে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস সংক্রান্ত বৈঠকের পর নবান্নে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তার বক্তব্যের কিছু অংশঃ

উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহে আর অগাস্ট মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে মাধ্যমিক পরীক্ষা।

৩ ঘণ্টার পরীক্ষা দেড় ঘণ্টায় করা হবে। স্কুলেই পরীক্ষা নেওয়া হবে। ঐচ্ছিক বিষয়ে পরীক্ষা হবে না। স্কুলের নম্বর দেওয়া হবে ঐচ্ছিক বিষয়ে

মোট মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ১২ লক্ষের বেশি। মাধ্যমিকে ৭টি মূল বিষয়ের পরীক্ষা হবে। উচ্চমাধ্যমিকে ১৫টি আবশ্যিক বিষয়ের পরীক্ষা হবে। পর্ষদ বিস্তারিত জানিয়ে দেবে

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস-এর কবলে বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর, দক্ষিণ ২৪ পরগনা-সহ কিছু জেলার মানুষের

৩ লক্ষ বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত

১.১৬ লক্ষ হেক্টর কৃষিজমি নষ্ট হয়েছে

এখন ও পর্যন্ত ১৫ হাজার কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে, আরো বিস্তারিত তথ্য পরে জানানো হবে, সমীক্ষা করা হবে

ইন্ডিয়ান মেডিকেল আইসোসিয়েশন এর প্র্যাকটিস করা ডাক্তার তা যদি ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় যায় তাহলে মানুষের অনেক সাহায্য হয়

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস এবং ভরা কোটালের দাপটে রাজ্যে ভেঙেছে একাধিক বাঁধ। সেচ দফতর থেকে দিঘায় যেটা করেছিলে, তার পুরোটাই ভাঙল কীভাবে? এত কংক্রিট করেও (ভাঙল কীভাবে)? দু’বছরের মতো হয়েছে। জলের স্রোত ছিল, সবটা ঠিক আছে। সবটা কীভাবে ভেঙে গেল। এর তদন্ত করা হবে

কাজে গাফিলতির অধিকার কাউকে দেওয়া হয়নি

বিদ্যাধরী সেতুর বাঁধ ভেঙ্গে গেলো কিকরে? আমফানের সময় বাঁধের জন্য টাকা দেওয়া হল। সব টাকা কি জলেই চলে যাচ্ছে? এটা তো আমায় দেখতে হবে

আমফানের পর কী কী কাজ হয়েছিল, তার কতটা অংশ ভেঙে গিয়েছে, তা খতিয়ে দেখবে অর্থ দফতর

যদি জানি যে জলের স্রোত এলে ভেঙে যাবে, তাহলে কেন করলাম? চারভাগের জায়গায় একভাগ করতে পারতাম। সেটা তো টিকে থাকতে পারত। জেনেশুনে বিষ পান করব কেন?’

একদম (সেচ দফতরের) টাকা ছাড়বে না। সেচ দফতরের অর্থ বরাদ্দের আগে যাবতীয় বিষয় খতিয়ে দেখার জন্য টাস্ক ফোর্স গঠন করতে বলেন

৫ কোটি ম্যানগ্রোভ লাগানোর কথা ছিল, কতটা কাজ হয়েছে?

২-৩ ঘন্টার মধ্যে যাতে জল নেমে যায় কলকাতা পুরসভাকে নজর রাখতে হবে

ভেঙে যাওয়া রাস্তাগুলো পুনরায় নির্মাণ করা হবে পথশ্রী প্রকল্পের আওতায়

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস ও কোটালের জোড়া ফলায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিস্তীর্ণ এলাকায় বাঁধ ভেঙে জল ঢুকেছে গ্রামে। তাতে ভেসে গিয়েছে মাছ চাষের বহু পুকুর

নোনা জলে অনেক বড় বড় মাছও তো মারা গিয়েছে। সেগুলোকে তুলে একটা জায়গায় এনে ওই মাছগুলোকে কেটে কেটে শুকিয়ে ভেজে এটা আমরা বাজারে বিক্রি করতে পারি কি না? তাহলে কিন্তু মাছটা ভাল থাকবে। তোমাদের যে এক্সপার্টরা রয়েছেন তাদের একটু মতামত নিও

কোভিড পরিস্থিতিতে ত্রাণশিবিরে আশ্রয় নেওয়া মানুষদের নিরাপত্তায় জোর দিন।

আশ্রিত সকলে যেন বিশুদ্ধ পানীয় জল, মাস্ক এবং প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র পৌঁছে দাও। আরও ১০ লক্ষ ত্রিপল পাঠাও

ত্রাণশিবিরে আশ্রিত গর্ভবতী মহিলা এবং বাচ্চাদের খাবারের উপর বিশেষ গুরুত্ব দেবে, তাদের জামাকাপড় পাঠিয়ে দাও

আগামী ৩ থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত ‘দুয়ারে ত্রাণ’ শিবিরে ক্ষতিগ্রস্তদের আবেদন নেওয়া হবে। এবার আর কারও মাধ্যমে নয়, যিনি ক্ষতিগ্রস্ত, তিনি সরাসরিই আবেদন করবেন। প্রতিটি গ্রামে গ্রামে ক্যাম্প করবে সরকার। যতটুকু ক্ষতি হয়েছে ততটুকুই বলবেন। ১৯ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত সেই আবেদনগুলি খতিয়ে দেখা হবে

তারপর ১ থেকে ৮ জুলাইয়ের মধ্যে সরাসরি ক্ষতিগ্রস্তরা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে এই টাকা পেয়ে যাবেন। এই কাজের জন্য সরকার ১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে

আগামীকাল আমি আর মুখ্য সচিব সন্দেশখালি, হিঙ্গলগঞ্জ যাব, রিপোর্ট নিয়ে আমরা সাগর পরিদর্শনে যাব, তারপর কলাইকুণ্ডায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করে দিঘা যাব, সেখানে বিকেলে প্রশাসনিক বৈঠক করব

রাজ্যে আমরা একে লকডাউন বলছি না। আমরা বলছি বিধিনিষেধ

আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত যা যা বিধিনিষেধ ছিল, সেগুলিই বজায় থাকবে। রাত ৯টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত কেউ বাইরে বেরোবেন না

বাজার, মিষ্টির দোকান, শাড়ি, গয়নার দোকান যে রকম নিয়ম মেনে খুলছিল সে রকমই খুলবে

শুধু জুটমিলে কর্মীর সংখ্যা ৩০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৪০ শতাংশ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে নির্মাণ কাজে যুক্ত শ্রমিকদের টিকা নেওয়া হয়ে গেলে তারা কাজ করতে পারবেন