Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


April 21, 2018

Major improvements in irrigation infrastructure and flood management

Major improvements in irrigation infrastructure and flood management

The State Irrigation and Waterways Department has been able to make considerable progress in the development of irrigation and flood management, including communicating about floods.

There has been a major revamping of the irrigation infrastructure, timely implementation of projects and improvements in the monitoring mechanism with respect to reservoirs operations and other issues.

Achievements during financial year 2017-18 regarding project implementation

  • Coverage of 5,25,600 acres for rabi/boro irrigation through government-constructed canals, the highest ever in the last four decades
  • Another 1,32,200 acres being irrigated by using the tidal flow in drainage channels
  • Restoration of irrigation potential in 96,000 acres across the state through the implementation of a cluster of surface irrigation projects, including 10 check dams
  • Provision of surface water for irrigating 20,75,600 acres during the kharif season and 5,25,600 acres during the rabi/boro season
  • Improvement of flood embankments and protection of riverbanks across a total length of 393 km through a series of projects, including Improvement of Embankments in Kandi and Adjoining Areas and Reconstruction of Alia-affected Sundarbans Embankments
  • Decongestion of 225 km of drainage channels in the districts of North 24 Parganas, South 24 Parganas, Purba Medinipur, Paschim Medinipur, Howrah, Hooghly and Kolkata through a series of projects, including the Kaliaghai-Kapaleswari-Baghai Basin Drainage Scheme
  • Construction of 70 reinforced cement concrete (RCC) bridges on irrigation canals and drainage channels in remote areas

Achievements of the flood management programme (FMP)

  • Despite the cessation of funding by the Central Government, the State Government has either managed to complete or is on target to complete major projects on flood management by usinbg its own funds, proving once again the commitment of the Trinamool Congress Government.
  • Flood mitigation and drainage improvement schemes in Kandi and adjoining areas in Murshidabad and Birbhum districts to be completed by June 2019
  • Major portion of Kaliaghai-Kapaleswari-Baghai Basin Drainage Scheme completed; the rest to be completed within next two years
  • Reconstruction of another 39 km of Cyclone Aila-affected embankments in the Sundarbans to be completed during FY 2018-19
  • Thus we see that through the development of a large-scale irrigation infrastructure and effective flood mitigation programmes, the State Government has been able to provide a lot of respite to a majority of the citizens.

 

 

 


এপ্রিল ২১, ২০১৮

সেচ দপ্তরের উন্নয়ন 

সেচ দপ্তরের উন্নয়ন 

২০১১ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস সরকার রাজ্যের প্রতিটি ক্ষেত্রে উন্নয়নের জন্য একগুচ্ছ পরিকল্পনা নিয়েছে, হাতে নিয়েছে প্রতি দপ্তরের জন্য অনেক প্রকল্প।

শেষ কয়েক বছর ধরে বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে সেচ উন্নয়ন, বন্যা নিয়ন্ত্রণ, যোগাযোগ উন্নয়ন ব্যবস্থায় নজির সৃষ্টি করেছে। আগের বছরের মতো ২০১৭-১৮ তেও নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সম্পন হয়েছে।

ভূপৃষ্ঠস্থ সেচের ক্লাস্টার প্রকল্প ও দশটি চেক ড্যামের মাধ্যমে ৯৬৬০০ একর জমিতে সেচের সম্ভবনা পুন: প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছে।

খারিফ মরশুমে ২০৭৫৬০০ একর জমিতে ভূপৃষ্ঠস্থ জলের মাধ্যমে সেচ ও রবি/বোরো মরশুমে ৫২৫৬০০ একর জমিতে ভূপৃষ্ঠস্থ জলের মাধ্যমে সেচ করা হচ্ছে।

বন্যা নিয়ন্ত্রণে বাঁধ, নদীর পাড় রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়েছে ৩৯৩ কিঃমিঃ। এই জেলাগুলি হল উত্তর, পশ্চিম, মধ্য ও দক্ষিণ বঙ্গ। আয়লা অধ্যুষিত সুন্দরবনে রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়েছে।

পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, হুগলী, হাওড়া, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও কলকাতায় ‘কালিয়াঘাই-কপালেশ্বরী-বাঘাই বেসিন ড্রেনেজ প্রকল্পের’ অধীনে ২২৫ কিঃ মিঃ নিকাশি নালা পরিষ্কার করা হয়েছে।

প্রত্যন্ত অঞ্চলে সেচের খাল ও নিকাশি চ্যানেলের ওপর ৭০ নতুন আরসিসি ব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছে।

সেচের জন্য গ্রহণ করা বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে সরকারি খালের সাহায্যে ২০১৭-১৮ সালে রবি/বোরো সেচ কভারেজ করা হয়েছে ৫২৫৬০০ একর জমিতে। যা অন্তত গত চার দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ। আর এটি সম্ভব হয়েছে গত কয়েক বছর ধরে সেচ পরিকাঠামোর পুনরুজ্জীবনের জন্য।

এছাড়াও ১৩২২০০ একর জমিতে সেচ কাজ করা হয়েছে নিকাশি চ্যানেল গুলিতে জোয়ারের জল দিয়ে।

বন্যা নিয়ন্ত্রণে একগুচ্ছ প্রকল্প

বন্যা নিয়ন্ত্রণের জন্য কেন্দ্রীয় প্রকল্পের টাকা বন্ধ হওয়া সত্ত্বেও রাজ্যের সেচ ও জলপথ দপ্তর সম্পূর্ণ নিজের খরচে কান্দি ও মুর্শিদাবাদ ও বীরভূমের সংলগ্ন অঞ্চলে প্রশমন এবং নিষ্কাশনের উন্নয়ন মূলক প্রকল্পে হাত দিয়েছে। ২০১৯ সালের জুন মাসের মধ্যে এই প্রকল্পসেশ হওয়ার কথা।

একইভাবে কেন্দ্রীয় অনুদান বন্ধ থাকা সত্ত্বেও ২০১৭-১৮ সালে রাজ্যের সেচ ও জলপথ দপ্তর প্রায় ‘কালিয়াঘাই-কপালেশ্বরী-বাঘাই অববাহিকা নিষ্কাশন প্রকল্পের ’ কাজ শেষ করে ফেলেছে। শুধু কালিয়াঘাই নদীতে রাবার ড্যাম নির্মাণ ও কিছু টারসিয়ারি ড্রেনের চ্যানেলের কাজ বাকি আছে।

২০১৮-১৯ সালের মধ্যে সুন্দরবনের আয়লা অধ্যুষিত আরও ৩৯ কিলোমিটার এলাকায় বাঁধ দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।