Latest Newsসাম্প্রতিক খবর


November 5, 2018

Tourist footfall in the Hills goes past recent years’ counts

Tourist footfall in the Hills goes past recent years’ counts

The tourist traffic in the Hills this festive season has surpassed the number of visitors in recent years, triggering a scramble for hotels, homestays and vehicles, said guides, tour operators and hotel owners in Darjeeling Hills.

The president of the Eastern Himalaya Travel and Tour Operators’ Association has said that according to the association’s estimates, there is an increase of around 45 per cent in the tourist inflow compared to 2016.

The flow of tourists in the Hills generally ebbs after Durga Puja and picks up around the third week of December. But this year, guided tours and hotels are already booked till the second week of November.

In Darjeeling, hotel owners have already started receiving queries for March and April. There was no vacancy in entire Darjeeling during Durga Puja, said a hotel owner in Darjeeling, and that more than 60 per cent of the rooms are still booked.

The homestays in Darjeeling and Kalimpong are also in demand due to their affordability and locations.


নভেম্বর ৫, ২০১৮

পুজোয় পাহাড়ে রেকর্ড পর্যটকের সমাগম

পুজোয় পাহাড়ে রেকর্ড পর্যটকের সমাগম

বাঙালি ভ্রমণপিপাসু। পুজো হোক কিংবা বড়দিন, ছুটির মরশুমে বাঙালি সপরিবারে বেরিয়ে পরে নতুন গন্তব্যের সন্ধানে। এ বছর পুজোর ছুটিতেও তার অন্যথা হয়নি। এবার পুজোয় পাহাড়ে পর্যটকদের সমাগম ভাঙল গত কয়েক বছরের সব রেকর্ড। গাইড, ট্যুরিস্ট অপারেটর এবং হোটেল মালিকদের বক্তব্য অনুযায়ী, হোটেল, হোমস্টে ও যানবাহনের চাহিদা ছিল তুঙ্গে।

পূর্ব হিমালয় ট্র্যাভেল অ্যান্ড ট্যুর অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বলেন, আমাদের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬র তুলনায় এবছর পাহাড়ে আগত পর্যটকদের সংখ্যা ৪৫ শতাংশ বেড়েছে।

সাধারণত দুর্গাপুজোর পর পাহাড়ে পর্যটকদের ভীড় কিছুটা কমে যায়, এবং ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে আবার বাড়তে শুরু করে। কিন্তু, এবছর নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত সব রুম বুকড।

দার্জিলিঙের হোটেল মালিকরা এখন থেকেই আগামী বছরের মার্চ মাসের বুকিঙের জন্য ফোন পাচ্ছেন। দুর্গাপুজোতে সমস্ত হোটেল কানায় কানায় ভর্তি ছিল এবং এখনও ৬০ শতাংশের বেশী হোটেল বুকড। দার্জিলিং ও কালিম্পং-এর হোমস্টেগুলির চাহিদাও তুঙ্গে।