Didi Direct

November 29, 2016

Modi started note-bandi, people will respond with vote-bandi: Mamata Banerjee in Lucknow

Modi started note-bandi, people will respond with vote-bandi: Mamata Banerjee in Lucknow

Trinamool Chairperson today addressed a massive protest rally against demonetisation today in Lucknow, Uttar Pradesh. Several members of the Samajwadi Party were present at the rally.

Mamata Banerjee targeted the Prime Minister for demonetisation and said the people from all sections of society – the common man, the farmers, the labourers, housewives are facing problems. “The people of Uttar Pradesh have made you the Prime Minister and they can remove you from the post too. You have started note-bandi, people will reply with vote-bandi,” she said.

She accused the PM of mismatch between his words and his actions. She said that BJP is looting the country without declaring Emergency. She accused the ruling party of depriving people of their constitutional rights. She slammed the Centre for not planning before going ahead with demonetisation and said BJP was aware of this move in advance.

Calling note-bandi a scandal, she said the fight will go on and she is even ready to go to jail.

 

মোদী করেছেন নোটবন্দি, মানুষ ওদের করবে ভোটবন্দিঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

নোট বাতিল ইস্যুতে আজ উত্তরপ্রদেশের লখনউ এর গোমতী নগরে একটি প্রতিবাদ সভা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সভামঞ্চে সমাজবাদী পার্টির বেশ কিছু নেতাও উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর হঠকারী সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এই তুঘলকি সিদ্ধান্তের ফলে সাধারণ মানুষ, কৃষক, শ্রমিক, গৃহকর্ত্রী সহ সব স্তরের মানুষ সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন।

তিনি বলেন, “উত্তরপ্রদেশের মানুষ আপনাকে প্রধানমন্ত্রী করেছেন তারাই আপনাকে আপনার পদ থেকে সরিয়ে দেবে। আপনি নোট-বান্দি শুরু করেছেন, মানুষ ভোট-বন্দির মাধ্যমে তার উত্তর দেবেন”।

তিনি আরও বলেন,  “আমরা কেউ কালো টাকার রোখার বিরোধী নই৷ কিন্তু পরিকল্পনামাফিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রয়োজন ছিল৷ ইন্দিরা গান্ধীও জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছিলেন৷ আর ইনি চুপিচুপি সে কাজ করে দিলেন৷ গণতন্ত্রে জরুরি অবস্থা চলে না৷”

তাঁর মন্তব্য,  “দেশের ৮৫ শতাংশ লোককে উনি চোর বলছে৷ সবাই চোর, আর উনি সাধু৷”  কালো টাকা রুখতে কালো আইন জারি করেছে বলে মোদিকে তোপ দেগে মমতা বলেন, “সাধারণ মানুষের অধিকার ছিনিয়ে নিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী৷ বাচ্চাদের মুখের খাবার থেকে যুবকদের ভবিষ্যৎ কেড়ে নিচ্ছেন৷ ১০০০ টাকা কালো হলে ২০০০ টাকা কি কালো হতে পারে না?”

বিদেশ থেকে এখনও কেন কালো টাকা ফিরল না, সে প্রশ্নেও এদিন মোদীকে বেঁধেন মমতা৷ আর তাই তাঁর এখনও দাবি, এই সিদ্ধান্ত প্রত্য়াহার করুক সরকার৷

প্রধানমন্ত্রীর কথা ও কাজের মধ্যে অনেক পার্থক্য আছে। তিনি বলেন, যে বিজেপি জরুরী অবস্থা ঘোষণা করে দেশকে লুঠ করছে। সাধারণ মানুষকে তাদের সাংবিধানিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করছে।

সবশেষে তিনি জানান, এটা সাধারণ মানুষের লড়াই এবং এই লড়াই করতে গিয়ে যদি তাঁকে জেলেও যেতে হয় তাঁর জন্যও তিনি প্রস্তুত।