Latest News

March 31, 2017

Bengal hikes daily wage of workers in 100 Days’ Work

Bengal hikes daily wage of workers in 100 Days’ Work

The daily wage of workers engaged in 100-days work under Mahatma Gandhi National Rural Employment Guarantee Act (MGNREGA) scheme has been increased to Rs 180 from Rs 176.

Panchayat and Rural Development Minister Subrata Mukherjee said that while foreign funding agencies had shown keen interest to fund projects taken up by the department in West Bengal, the Centre was not cooperating.

It may be recalled that in Pradhan Mantri Gram Sadak Yojna, the Centre has reduced its share of financial support and also the maintenance of rural roads is now responsibility of the state government. Thus, the state government has to keep money for maintenance of rural roads in addition to setting up new ones.

The Minister said that the Panchayat and Rural Development department had constructed 12,000 km rural road between 2011-16. After coming to power in 2011, Chief Minister Mamata Banerjee had stressed the need to construct rural roads and provide drinking water to every rural household, besides setting up toilets in rural homes. The Left Front government took a decade to construct 10,000 km rural roads.

 

একশো দিনের কাজে দৈনিক মজুরি বাড়ালো রাজ্য সরকার

বাংলায় একশো দিনের কাজে দৈনিক মজুরি ১৭৬ টাকা থেকে বাড়িয়ে করা হল ১৮০ টাকা।

রাজ্যের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জী বলেন, রাজ্যের প্রকল্পগুলিতে বিদেশী লগ্নি সংস্থাগুলি উৎসাহ দেখালেও কেন্দ্রীয় সরকার কোনভাবেই সহযোগিতা করছে না। প্রসঙ্গত ১০০ দিনের কাজে কেন্দ্র তাঁর অনুদানের ভাগ অনেক কমিয়েছে ও পাশাপাশি গ্রামীণ রাস্তার মেরামতও পুরোপুরি করতে হয় রাজ্যকে।

রাজ্য সরকারকে এখন নতুন রাস্তা নির্মাণের পাশাপাশি পুরনো রাস্তার মেরামতের জন্যও টাকার ব্যাবস্থা করতে হয়। বাম সরকার যেখানে মাত্র ১০,০০০ কিঃ মিঃ রাস্তা তৈরি করতে এক দশক সময় নিয়েছিল, সেখানে, ২০১১ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দপ্তর ১২,০০০ কিঃ মিঃ গ্রামীণ রাস্তা তৈরি করেছে।বাকি রাস্তার কাজ দ্রুত গতিতে এগোচ্ছে। রাজ্য সরকার ৪০০ কিঃ মিঃ ও ৮০০ কিঃ মিঃ আরও রাস্তা নির্মাণের জন্য অনুমোদন চেয়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে ডিপিআর পাঠিয়েছে।

২০১১ তে ক্ষমতায় এসে মুখ্যমন্ত্রী প্রথমেই শৌচালয় তৈরি, গ্রামীণ রাস্তা তৈরি ও পানীয় জল সরবরাহের ওপর জোর দিয়েছিলেন। গ্রামীণ অঞ্চলে বাড়ি বাড়ি পানীয় জল সরবরাহের জন্য জন স্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তর হাতে নিয়েছে ৮০০০ কোটি টাকার প্রকল্প।